বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বৈশ্বিক অতিমারি করোনার কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়। পরে অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চললেও কোনো পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। এভাবেই এক বছর চার মাস কেটে যায়। এতে শিক্ষার্থীরা চার সেমিস্টার পিছিয়ে পড়েন। শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে অনলাইনে পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গণবিজ্ঞপ্তিতে ২০ আগস্টের পর নির্ধারিত তারিখে অনলাইনে পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে শিক্ষার্থীদের।

একই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যে যেখানে অবস্থান করছেন, সেখান থেকেই নিবন্ধন করে টিকা নিতে পারবেন। টিকা গ্রহণ করে স্ব স্ব শ্রেণির প্রতিনিধিদের মাধ্যমে বিভাগীয় প্রধানকে বিষয়টি জানাতে বলা হয়েছে।

অনলাইন পরীক্ষা কমিটির সদস্যসচিব ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রাজিউর রহমান বলেন, অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে খসড়া নীতিমালা তৈরি করা হয়েছে। সেটি অনুমোদনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই অনলাইনে পরীক্ষার কার্যক্রম শুরু হবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন