default-image

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে গত সোমবার (২২ জুন) মারা যান বিমলেন্দু চক্রবর্তী (৬৫) নামের যশোরের অভয়নগর উপজেলার এক অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। খুলনার ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ওই রাতে তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আজ শনিবার তাঁর নমুনা পরীক্ষার প্রাপ্ত প্রতিবেদনে জানা গেছে, তিনি করোনা ‘পজিটিভ’ ছিলেন।

মৃত বিমলেন্দু চক্রবর্তী অভয়নগর উপজেলার ধুলগ্রাম গ্রামের বাসিন্দা। তিনি উপজেলার ধুলগ্রাম মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে প্রধান শিক্ষক হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বিমলেন্দু চক্রবর্তী দীর্ঘদিন ধরে কিডনিজনিত রোগে ভুগছিলেন। কয়েক দিন আগে তাঁর জ্বর হয়। সোমবার বিকেল থেকে তাঁর শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ওই দিন বিকেলে স্বজনেরা তাঁকে খুলনার ফুলতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সন্ধ্যায় তাঁর শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

সোমবার রাতেই বিমলেন্দু চক্রবর্তীর মরদেহ থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরদিন মঙ্গলবার পরীক্ষার জন্য নমুনা যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে পাঠানো হয়। এদিকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সোমবার রাতেই তাঁর মরদেহ অভয়নগরের ধুলগ্রামে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে সৎকার করা হয়। আজ সকালে বিমলেন্দু চক্রবর্তীর নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে পৌঁছেছে। প্রতিবেদনে জানা গেছে, তিনি করোনা ‘পজিটিভ’ ছিলেন।

অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহমুদুর রহমান রিজভী বলেন, এই নিয়ে উপজেলায় করোনায় (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হয়ে চারজন মারা গেলেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0