বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বর্তমানে আল আমিনের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় চারটি মামলা হয়। এর মধ্যে গত ২৬ আগস্ট তাঁর বিরুদ্ধে হয় অর্থ পাচার আইনে মামলা। ওই মামলায় আজ বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতে হাজির করে পাঁচ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। আদালত উভয় পক্ষের শুনানি নিয়ে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সিআইডির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নানা প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন পেশার মানুষের কাছ থেকে আমানত সংগ্রহ করেন আসামি আল আমিন। এরপর কোম্পানির হিসাব থেকে ১ কোটি ১৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন তিনি। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানিয়েছেন, তাঁর প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকসংখ্যা প্রায় এক কোটি। এক মাসের মধ্যে তাঁরা প্রায় ৫ বা ৬ কোটি টাকার ক্রয়াদেশ পান। প্রথম দিকে যথাসময়ে পণ্য সরবরাহ করলেও পরে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা আত্মসাৎ করেন।

গত বছরের নভেম্বর মাসে ২৬৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হন আল আমিন। পরে জামিনে ছাড়া পান। এরপর ৩ অক্টোবর রাজধানীর রমনা এলাকা থেকে তিনি আবার গ্রেপ্তার হন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন