বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রতিমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা সব সময় চাইতেন, বাংলাদেশ হবে একটি ধর্মনিরপেক্ষ দেশ। যেখানে প্রতিটি ধর্মের মানুষ স্বাধীনভাবে তার ধর্মকর্ম পালন করতে পারবে। কেউ কারও ধর্মীয় আচার পালনে বাধা দেবে না। বঙ্গবন্ধুর সেই অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যেই তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমানে বাংলাদেশ অতীতের অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেশি অসাম্প্রদায়িক ও শান্তিপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে। অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বর্তমানে ধর্মীয় সংখ্যালঘুরা বাংলাদেশে ভালো আছেন। মাঝে মাঝে কেউ কেউ ধর্মের নামে কিছু বিব্রতকর পরিস্থিতি তৈরি করার চেষ্টা করলেও তা বঙ্গবন্ধুকন্যার দ্রুত ও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে ব্যর্থ হয়।

মতবিনিময় সভায় কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী কানাডার রায়েরসন ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ‘ডিজিটাল কমিউনিকেশন অ্যান্ড মাস মিডিয়া’ শীর্ষক একটি আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে মুরাদ হাসান বলেন, বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির যুগে বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে সমহারে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশও এগিয়ে যাচ্ছে। আধুনিক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সেবাকে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। সরকারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করাও এর লক্ষ্য।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন