default-image

দেশের ৮ বিভাগে আট শতাধিক পর্যটন স্পট চিহ্নিত করেছে পর্যটন করপোরেশন। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে এই তথ্য জানানো হয়।


বৈঠক সূত্র জানায়, এর আগের বৈঠকে সংসদীয় কমিটি নতুন নতুন পর্যটন স্পট চিহ্নিত করা এবং এগুলো আকর্ষণীয় করার উদ্যোগ নেওয়ার সুপারিশ করেছিল। রোববারের বৈঠকে পর্যটন করপোরেশন জানায়, তারা আট শতাধিক স্পট চিহ্নিত করেছে। সংসদীয় কমিটি বলেছে, কীভাবে এসব এলাকাগুলোকে পর্যটন এলাকা হিসেবে তালিকাভুক্ত করা যায় তা দেখতে হবে। এসব স্থানকে কীভাবে পর্যটনের জন্য আকর্ষণীয় করা যায়, এ জন্য কী কী উদ্যোগ নেওয়া প্রয়োজন তা নিতে হবে। এ কাজে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

সংসদ সচিবালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে জানানো হয়েছে গত ৩১ মে বিমানের কার্যক্রম পুনরায় চালু করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন, সামাজিক দূরত্ব বজায় ও দাপ্তরিক চাহিদা বিবেচনায় ন্যূনতম কর্মীর মাধ্যমে বিমানের অপারেশনাল কাজ সীমিত আকারে চালু করা হয়। এখন ফ্লাইট সংখ্যা ক্রমে বাড়ছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে অধিক জনবলের প্রয়োজন হচ্ছে। সে ক্ষেত্রেও কর্মকর্তা কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালন, শারীরিক দূরত্ব রক্ষা করে দায়িত্ব পালনের বিষয়টি নিশ্চিত করা হচ্ছে। বৈঠকে ‘বাংলাদেশ ট্রাভেল এজেন্সি (নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রণ) (সংশোধন) আইন, ২০১৩’ নিয়ে আলোচনা হয়। এ বিষয়ে আগামী বৈঠকে আরও আলোচনা হবে।
কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, আশেক উল্লাহ, আনোয়ার হোসেন খান এবং সৈয়দা রুবিনা আক্তার বৈঠকে অংশ নেন।

মন্তব্য পড়ুন 0