ময়মনসিংহকে বিভাগ করার খবরে ওই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে আনন্দের জোয়ার বইছে। গত সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই বিভাগ করার বিষয়ে সম্মতি দেন। এই খবর প্রকাশের পর ওই অঞ্চলে আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে। তবে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো নির্দেশনা পায়নি।
এ বিষয় জানতে চাইলে গতকাল মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা প্রথম আলোকে বলেন, এ বিষয়ে তিনি আনুষ্ঠানিক বা অনানুষ্ঠানিক কোনো নির্দেশনা পাননি।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন কর্মকর্তা প্রথম আলোকে বলেন, এটি শুধু প্রশাসনিক বিষয় নয়, এটি রাজনৈতিক সিদ্ধান্তও বটে। তাই প্রধানমন্ত্রী বললে সেখানে বড় কোনো সমস্যা হবে না। তবে সমস্যা হলো, বৃহত্তর ময়মনসিংহের ছয়টি জেলার মধ্যে কিশোরগঞ্জ ও টাঙ্গাইলের অনেক মানুষ ‘ময়মনসিংহ বিভাগে’ অন্তর্ভুক্ত হতে চান না। তাঁরা ঢাকা বিভাগেই থাকতে চান। আর সরকার চাইছে ছয়টি জেলা নিয়েই ময়মনসিংহ বিভাগ করতে। বাকি চারটি জেলা হলো ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, জামালপুর ও শেরপুর। বিভাগের পাশাপাশি ময়মনসিংহকে সিটি করপোরেশন ও আলাদা শিক্ষা বোর্ড করারও চিন্তা আছে সরকারি পর্যায়ে।
ময়মনসিংহ নাগরিক আন্দোলন, ময়মনসিংহ বিভাগ বাস্তবায়ন কমিটি ও বৃহত্তর ময়মনসিংহ বিভাগ বাস্তবায়ন পরিষদ দীর্ঘদিন ময়মনসিংহ বিভাগ করার দাবি জানিয়ে আসছে। তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৪ সালে ময়মনসিংহে একটি জনসভায় ঘোষণা দিয়েছিলেন, তাঁর দল ক্ষমতায় এলে ময়মনসিংহকে বিভাগ করা হবে। কিন্তু এরপর তিনি একাধিকবার রাষ্ট্রক্ষমতায় এলেও ময়মনসিংহকে বিভাগ করেননি। এ নিয়ে ওই অঞ্চলের মানুষের মধ্যে ক্ষোভ ছিল। তবে সোমবার প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা গণমাধ্যমে প্রকাশের পর থেকে ওই অঞ্চলের মানুষ আনন্দ করছেন।
সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ গতকাল এক বিবৃতিতে এ জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। বিবৃতিতে তিনি বলেন, প্রশাসনের এ বিকেন্দ্রীকরণের ফলে প্রায় দুই কোটি মানুষের দীর্ঘদিনের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটবে।
ময়মনসিংহ নাগরিক আন্দোলনের উদ্যোগে গতকাল বিকেলে শহরের রেলওয়ে স্টেশন চত্বর থেকে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। জাতীয় পার্টিও বিকেলে শহরে আনন্দ মিছিল বের করে। ময়মনসিংহের রাজনৈতিক নেতারা গতকালের বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় সংবাদপত্রে ময়মনসিংহকে বিভাগ করার ঘোষণায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানিয়ে ব্যক্তিগত বিজ্ঞাপন দিয়েছেন।
ময়মনসিংহ নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি আনিসুর রহমান খান বলেন, ‘আমাদের ২৫ বছরের চাওয়া পূরণ হয়েছে। আমাদের আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত সবাইকে অনেক ধন্যবাদ জানাই।’ ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো. ইকরামুল হক বলেন, ‘ময়মনসিংহকে বিভাগ করার ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। সেই সঙ্গে ময়মনসিংহবাসীর পক্ষ থেকে ঘোষণা দ্রুত কার্যকর করার অনুরোধ জানাই।’
প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণার দিন সোমবার রাতেও শহরের ময়মনসিংহ শহরের গাঙ্গিনারপাড়, নতুন বাজার, ছোট বাজারসহ বিভিন্ন সড়কে আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে আনন্দ মিছিল করতে দেখা গেছে। শহরের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় মাঝ রাত পর্যন্ত সাধারণ মানুষও আনন্দ মিছিল করেন। একে অপরকে মিষ্টিমুখ করান।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন