সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা বাজার এলাকা থেকে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে একটি রয়েল বেঙ্গল টাইগার (বাঘ) ও চারটি হরিণের চামড়াসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ নিয়ে সাতক্ষীরায় গত পাঁচ মাসে র‌্যাবের সদস্যরা চারটি বাঘের চামড়া উদ্ধার করলেন।
গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন সাতক্ষীরার দেবহাটার আবু ছালেক (৪২), আশাশুনির ইসমাইল মোড়ল (৩৫) ও খুলনার দাকোপের মো. আমান উল্লাহ গাজী (২৫)।
খুলনা র‌্যাব-৬-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল এনামুল আরিফ সাতক্ষীরা র‌্যাবের অস্থায়ী ক্যাম্পে প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, পাচারকারী চক্রের সদস্য একটি বাঘের ও চারটি হরিণের চামড়া নিয়ে বুধহাটা বাজার এলাকায় বিক্রির জন্য অবস্থান করছে—এ খবরের ভিত্তিতে র‌্যাব-৬-এর খুলনার (সিপিসি-১) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) আবদুর রাজ্জাক মিয়ার নেতৃত্বে তাঁরা বুধহাটা বাজার এলাকায় অভিযান চালান। এ সময় একটি বাঘের ও চারটি হরিণের চামড়াসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাঘের চামড়াটির লেজসহ দৈর্ঘ্য ১১০ ইঞ্চি।
গ্রেপ্তার ইসমাইল মোড়ল বলেন, খুলনার কয়রা উপজেলার বেতকাশি এলাকার কয়েকজন মিলে প্রায় দুই মাস আগে বাঘ ও হরিণ শিকার করেন। পরে চামড়াগুলো বিক্রির জন্য একই এলাকার আবদুস সোবহান ও আসলামের কাছে দেন। তাঁরা চামড়াগুলো তাঁদের কাছে রেখে ক্রেতা খুঁজছিলেন। চামড়াগুলো বিক্রি করতে পারলে তাঁদের ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হবে বলে তাঁদের সঙ্গে চুক্তিও হয়।
এর আগে গত ১৬ অক্টোবর সাতক্ষীরা শহরের ইটাগাছা এলাকা থেকে দুটি বাঘের চামড়া উদ্ধার করে র‌্যাব। সে সময় পাচারকারী চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। ৫ ফেব্রুয়ারি র‌্যাব-৬-এর সাতক্ষীরার ক্যাম্পের সদস্যরা তালা উপজেলার কদমতলা থেকে আরেকটি বাঘের চামড়াসহ একজনকে গ্রেপ্তার করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন