default-image

নিরাপদ সড়কসহ নয়টি দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শনিবারও রাজধানীর সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়ে বিক্ষোভ করে। সকাল ১০টা থেকেই আশপাশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় হাজারের ওপর শিক্ষার্থী অবস্থান নেয়।

‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ ‘আশ্বাস মানি না, বাস্তবায়ন করতে হবে’ সহ নানান স্লোগান দিতে থাকে শিক্ষার্থীরা। সায়েন্স ল্যাবরেটরির মোড়ে অবস্থান নিয়ে একটি দল স্লোগান দিতে থাকে। অন্যরা মিরপুর সড়কের দুই পাশে বসে প্লাকার্ড হাতে স্লোগান দেয়।

সরকার দাবি মেনে নেওয়ার কথা বলছে, এরপরও শিক্ষার্থীরা সড়কে নেমে বিক্ষোভ করার কারণ হিসেবে ঢাকা সিটি কলেজের এক শিক্ষার্থী বলে, দাবির বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত তারা সড়কে থাকবেন। আইনটি দ্রুত পাস হোক এবং তার কার্যকারিতা দেখে তারা সড়ক ছাড়বে।

সড়কের মাঝ দিয়ে জরুরি পরিবহন এলে তাতে নিজেরা চড়ে দ্রুত পার করে দেয়। আজও তারা লাইসেন্স পরীক্ষা করে। শাহবাগ থেকে আসা গাড়িগুলোর গায়ে ইংরেজিতে ‘ওকে’ লেখা ও মামলা থাকলে ‘মামলা’ লেখা আছে কিনা সেটাও তারা খেয়াল করে। এ ছাড়া রিকশা ও অন্যান্য যান চলাচলের জন্য আলাদা লেন করে দেয় শিক্ষার্থীরা।

দুপুরে পর ধানমন্ডির দিকে হামলা হলে তার রেশ সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়েও এসে পড়ে। একপর্যায়ে দেখা যায় ঢাকা কলেজের সামনে একদল যুবক অবস্থান নিলে শিক্ষার্থীরাও মামুর মসজিদের পাশে মিরপুর সড়কে হামলা হলে তা ঠেকানোর প্রস্তুতি নিয়ে দাঁড়ায়। এ মোড়ের শিক্ষার্থীরা একেকটি দলে ভাগ হয়ে ধানমন্ডির দিকে এগোয়। আবার কেউ কেউ ওই মোড়েই অবস্থান নিয়ে স্লোগান দিতে থাকে।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহন লিমিটেডের একটি বাসের চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। ওই ঘটনার প্রতিবাদে সেদিন থেকেই শিক্ষার্থীরা রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তায় নয় দফা দাবিতে শনিবার সপ্তম দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0