আসলাম স্মৃতি ফাউন্ডেশনের দুই দিনব্যাপী বার্ষিক চিকিৎসাসেবা কর্মসূচি সম্পন্ন হয়। এই কর্মসূচির আওতায় গত ৩০ ও ৩১ জানুয়ারি বিনা মূল্যে ৯৬ জনকে খতনা, ১ হাজার ৯৬ জনকে চক্ষুচিকিৎসা, ৩০৮ জনকে দন্তচিকিৎসা, ৩৪২ জনের ব্লাড গ্রুপিং করা হয়। এ ছাড়া ১ হাজার ৯৪৩ জন বালিকার কর্ণ ও নাক ছেদন করা হয়। ১৩ বছর ধরে রাউজানের এই ফাউন্ডেশন প্রতিবছর চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছে। এ বছরের কর্মসূচিতে ৪৭৯ জনকে চশমা বিতরণ এবং ১০৯ জনের চোখের ছানি অপারেশনের জন্য মনোনীত করা হয়। এ কর্মসূচির সমাপ্তির দিন ৩১ জানুয়ারি আসলাম স্মৃতি ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান চিকিৎসক এস এম এম হাসানের সভাপতিত্বে এক সভায় আয়েশা-আসলাম স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষায় কৃতিত্ব অর্জনকারীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে অধ্যাপক হারুনুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক আজাদ খান, চুয়েটের গণিত বিভাগের অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, সমাজসেবক ছালামত উল্লাহ চৌধুরী, সহপ্রধান শিক্ষক মো. শফি, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দিদারুল আলম, সামশুল আলম, ইউপি সদস্য বাবুল মিয়া, সমাজসেবক ফজল হক কোম্পানি, ওসমান সওদাগর, তফসির আহমদ, জাহেদুল আলম, এস এইচ এম মহসিনসহ সমাজের গণমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন