আওয়ামী লীগের কারণেই ডিজিটাল বাংলাদেশের বিপ্লব সম্ভব হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, ‘অনেকে বলে দেশ এমনি এগিয়ে যাবে। দেশ এমনি এমনি এগিয়ে যাবে না। ডিজিটাল বাংলাদেশের বিপ্লব সম্ভব হয়েছে আওয়ামী লীগের কারণে। আসুন একসঙ্গে এগিয়ে যেতে থাকি। বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে থাকি।’

আজ বৃহস্পতিবার রাতে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৫–এর ‘অ্যাওয়ার্ড নাইট’ অনুষ্ঠানে জয় এসব কথা বলেন। এ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৫।
সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘হলভর্তি দর্শক দেখে খুব আনন্দ লাগল। ডিজিটালের প্রতি তরুণদের আগ্রহ দেখে আনন্দ পেয়েছি। ব্যক্তিগতভাবে আমি এ জন্য গর্বিত। আমার স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশ ডিজিটাল হবে। আইটি ইন্ডাস্ট্রি গড়ে তুলব। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের আয়োজন সেই স্বপ্নের একটা সফলতা। বিদেশি রাষ্ট্রের অনেকেই আমাকে জিজ্ঞেস করেছে, গার্মেন্টস খাতে বাংলাদেশের প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়ছে। সে ক্ষেত্রে আমরা পরবর্তীতে কী করছি? আমি তাদের বলেছি, বিকল্প হিসেবে আমরা জাহাজ তৈরি, আইটি এক্সপোর্ট তৈরিকে গুরুত্ব দিচ্ছি। আইসিটি এক্সপোর্ট আমাদের দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। গত ৫ বছরে আমরা অনেক দূর এগিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য ২০১৯ সালের মধ্যে এক বিলিয়ন ডলার আইসিটি এক্সপোর্ট থেকে আয় করা। ২০২১ সালের আগেই বাংলাদেশ মধ্যম সারির দেশ হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হবে। এ জন্য অর্থনীতির গতি আরও দ্রুত বাড়াতে হবে। আমাদের ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি দরকার হবে। বিদেশি বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। এটা অসম্ভব কিছু নয়। সহজেই আমরা করতে পারব। এ জন্য বেসিসের সঙ্গে আজ মিটিং করেছি।’
জয় বলেন, এতদিন বড় বড় কোম্পানির বিনিয়োগ নিয়ে চিন্তা করেছি। এ রকম বড় বড় প্রতিষ্ঠান হচ্ছে অ্যাপল, গুগল ও ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠান। বড় প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগের জন্য যে অবকাঠামো দরকার হয়, যেমন–জমি বা অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা সেগুলো আমাদের সীমিত। আমরা গ​িরব দেশ হলেও কিন্তু আমাদের মেধার অভাব নেই। ভবিষ্যতের গুগল, অ্যাপল ফেসবুক বাংলাদেশ থেকেই হবে। তবে তাদের জন্য আমাদের সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের উঠিয়ে আনার জন্য বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে পারি। সিলিকন ভ্যালি এখন ভবিষ্যতের গুগল, ফেসবুক খুঁজে বেড়াচ্ছে। বাংলাদেশকে সেই বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে হবে। সেখানে ছোট বিনিয়োগকারীদের পুঁজি বাজারে আনার সিদ্ধান্তটা আমরা নিতে পেরেছি।’
ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের সমাপনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন