default-image

হেফাজতে ইসলামের সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে হত্যার অভিযোগে হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে এই দাবি জানায় হেফাজতে ইসলাম।

মামলাটি ‘রাজনৈতিক চক্রান্ত’ ও আলেমদের হয়রানি করার দুরভিসন্ধি উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, আহমদ শফীর মৃত্যু স্বাভাবিক ছিল। একটি মহল ষড়যন্ত্রমূলকভাবে নির্জলা মিথ্যাচার করে যাচ্ছে। মামলায় যাঁদের আসামি করা হয়েছে, তাঁরা কেউ এর সঙ্গে সম্পৃক্ত নন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে শীর্ষ আলেমদের সঙ্গে পরামর্শ করে কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে হেফাজত।

বিজ্ঞাপন

বিবৃতিদাতারা হলেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জুনাইদ আল হাবীব, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা লোকমান হাকীম, মাওলানা নাসির উদ্দিন, মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মাওলানা শফিক উদ্দীন, মাওলানা হাবীবুল্লাহ মিয়াজী ও মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী। তাঁরা সবাই হেফাজতের আমির জুনায়েদ বাবুনগরীর অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর আহমদ শফীকে হত্যার অভিযোগে তাঁর শ্যালক মোহাম্মদ মঈন উদ্দীন বাদী হয়ে চট্টগ্রাম আদালতে মামলা করেন। ওই বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শাহ আহমদ শফী ১০৩ বছর বয়সে মারা যান। মামলটি এখন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) তদন্ত করছে।

মন্তব্য করুন