কোনো ধরনের নোটিশ ছাড়াই বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ইটিভির অনুষ্ঠান সম্প্রচারে হঠাৎ বাধা দেওয়া কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গতকাল বুধবার এ রুল দেন।
একই সঙ্গে চ্যানেলটির অনুষ্ঠান সম্প্রচারে প্রতিবন্ধকতা দূর করতে বিবাদীদের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। তথ্যসচিব, টেলিযোগাযোগ সচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, কেব্ল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি ও সম্পাদকসহ বিবাদীদের তিন সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।
রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী রফিক-উল হক। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী শেখ শফিক মাহমুদ। রাষ্ট্রপক্ষে এ সময় সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন। পরে রফিক-উল হক প্রথম আলোকে নোটিশ ছাড়াই ইটিভির অনুষ্ঠান সম্প্রচার হঠাৎ করে বন্ধ করা কেন বেআইনি হবে না, এ বিষয়ে রুল দেওয়া হয়েছে।
নোটিশ ছাড়া চ্যানেলটির অনুষ্ঠান সম্প্রচারে আকস্মিক বাধা নিয়ে লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি হোসেন আহমেদ হেলাল, ইটিভির নিজস্ব প্রতিবেদক ফারুক হোসেন ও ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা শরিফুল ইসলাম রিটটি করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন