বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইভ্যালির গ্রাহক ফরহাদ হোসেন ওই আবেদন করেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী এ এম মাছুম ও সৈয়দ মাহসিব হোসেন।
পরে আইনজীবী সৈয়দ মাহসিব হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ইভ্যালি থেকে পণ্য অর্ডার করে গ্রাহকেরা তা পাচ্ছিলেন না। এ ছাড়া টাকাও পাননি তাঁরা। এ অবস্থায় ইভ্যালি কোম্পানির অবসায়ন চেয়ে ওই গ্রাহক আবেদন করেন। আদালত আবেদনটি গ্রহণ করেছেন। কোম্পানি কেন অবসায়ন করা হবে না, এ মর্মে নোটিশ ইস্যু করা হয়েছে। একই সঙ্গে ইভ্যালির সব স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি ও হস্তান্তরে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন