বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জাতীয় প্রেসক্লাবে আজ বুধবার ডিপ্লোম্যাটিক করেসপনডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ডিকাব) আয়োজিত ‘ডিকাব টক’ অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার এ মন্তব্য করেন। লিখিত বক্তবে৵ তিনি বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে বহু মত ও গণতান্ত্রিক চর্চা সমুন্নত রাখার যে অঙ্গীকার করা হয়েছে, সেই অনুযায়ী ভোটার ও প্রার্থীদের সুরক্ষা দিয়ে সুষ্ঠু প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে আগামী নির্বাচন আয়োজনে বিদেশি বন্ধু হিসেবে যতটা সম্ভব সমর্থন দিয়ে যাবে যুক্তরাজ্য।

বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে আয়োজনের ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্য কীভাবে যুক্ত হবে—এমন প্রশ্নের জবাবে রবার্ট ডিকসন বলেন, এ দেশে নির্বাচন কীভাবে হবে তা বলে দেওয়া বিদেশিদের কাজ নয়। তবে নির্বাচনী প্রক্রিয়া যাতে স্বচ্ছ থাকে, সেটি গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, নির্বাচনে সব দল, প্রার্থী ও ভোটারের অংশগ্রহণ জরুরি এবং পুরো প্রক্রিয়ার ওপর আস্থা থাকতে হবে। পুরো বিষয়টি বাংলাদেশের জনগণ তাদের নিজেদের মতো করেই করবে।

বাংলাদেশে দুর্গাপূজার সময়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর হামলার প্রসঙ্গ টেনে রবার্ট ডিকসন বলেন, ‘বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী মত প্রকাশ, ধর্মীয় স্বাধীনতার চর্চা সমুন্নত রাখার প্রতি যাঁদের সমর্থন রয়েছে, আমরা যে তাঁদের পাশে রয়েছি, তা আমরা জনসমক্ষে এবং সরকারের জ্যেষ্ঠ ব্যক্তিদের সঙ্গে আলোচনায় উল্লেখ করেছি।’ সম্প্রতি রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহসহ একাধিক খুনের ঘটনায় তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

ডিকাব সভাপতি পান্থ রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মঈনুদ্দীন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন