ফেসবুকে নিজের ভ্যারিফায়েড অ্যাকাউন্টে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘পয়লা মে পর্যন্ত তিন দিনে ঢাকা শহর ছেড়ে যাওয়া সিমের সংখ্যা ৭২ লাখ ৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এর আগের দুই দিনে আনুমানিক ৩০ লাখ সিম ঢাকার বাইরে গিয়ে থাকলে সিমের মোট সংখ্যা কোটি অতিক্রম করে গেছে। পয়লা মে সর্বোচ্চ প্রায় ২৯ লাখ সিম ঢাকা ছেড়েছে।’

গত তিন দিনে কোন মুঠোফোন অপারেটরের কী পরিমাণ সিম ঢাকার বাইরে গেছে, তার একটি হিসাবও ফেসবুক পোস্টে সংযোজন করেছেন টেলিযোগাযোগমন্ত্রী। সে অনুযায়ী, তিন দিনে গ্রামীণফোনের ৩৩ লাখ ৪৫ হাজার ৫০৭ সিম, রবি আক্সিয়াটা লিমিটেডের ১৮ লাখ ২৪ হাজার ৯৫৬ সিম, বাংলালিংকের ১৭ লাখ ৮৮ হাজার ৩১২ সিম ও টেলিটকের ২ লাখ ৪৬ হাজার ২৫০ সিম ঢাকার বাইরে গেছে।

মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার আজ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আগের দুই দিনের (বুধ ও বৃহস্পতিবার) হিসাবটা আনুমানিক। মুঠোফোন অপারেটরদের মধ্যে রবি শুধু দুই দিনের হিসাব দিয়েছিল। সেখানে দেখা গেছে ১১ লাখ সিম ঢাকার বাইরে গেছে। রবির চেয়ে গ্রামীণের সংখ্যা বেশি হবে। এ ছাড়া অন্য অপারেটররা আছে। সব মিলিয়ে ধরে নিচ্ছি, অন্তত ৩০ লাখ সিম বাইরে গেছে। তবে সিমধারী ছাড়া অন্যরাও বাইরে গেছে। যেমন পরিবারের শিশুদের বা ১৮ বছর হয়নি এমন অনেকের সিম থাকে না। তাই এক কোটির বেশি মানুষ গেছে বলে ধরে নিচ্ছি।’

এবারের ঈদে প্রায় দ্বিগুণ মানুষ গ্রামের বাড়িতে যাবে বলে সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিল যাত্রী কল্যাণ সমিতি। ওই সংবাদ সম্মেলনে বুয়েটের দুর্ঘটনা গবেষণাকেন্দ্রের পরিচালক মো. হাদিউজ্জামান বলেছিলেন, ‘আমাদের চলমান একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ঈদের আগে চার দিনে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৩০ লাখ মানুষ ঢাকা ছাড়বেন।’

ওই গবেষণার বরাত দিয়ে হাদিউজ্জামান বলেছিলেন, ‘ঈদের আগে প্রতিদিন বাসে আট লাখ, ট্রেনে এক লাখ, লঞ্চে দেড় লাখ, ব্যক্তিগত গাড়িতে প্রায় চার লাখ, মোটরসাইকেলে প্রায় চার লাখ মানুষ ঢাকা ছাড়তে পারবেন। বাকি প্রায় ১২-১৩ লাখ মানুষ ঢাকা ছাড়বে ট্রাক, ট্রেনের ছাদে করে।’

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন