default-image

অনশন ভাঙলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ অনুষদের সন্ধ্যাকালীন মাস্টার্সের ছাত্র ওয়ালিদ আশরাফ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের দাবিতে গত ২৫ নভেম্বর থেকে অনশন করে আসছিলেন ওয়ালিদ। আজ শনিবার বেলা পৌনে একটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামান তাঁকে পানি খাইয়ে অনশন ভাঙান।

এর আগে ওয়ালিদ আশরাফকে ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠানের আশ্বাস দেন উপাচার্য। তিনি ওয়ালিদকে বলেন, নির্বাচন না হওয়ার যে সংস্কৃতি চলে আসছে, তা তিনি ভাঙতে চান। এই নির্বাচন হবে। তবে একটু সময় লাগবে। উপাচার্যের এই আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে ১৫ দিনের মাথায় ওয়ালিদ আশরাফ অনশন ভাঙলেন।

ডাকসু নির্বাচনের সুনির্দিষ্ট তারিখ ঘোষণার দাবিতে অনশন করছিলেন, তা না পেয়ে কর্মসূচি থেকে সরে এলেন কেন? সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের জবাবে ওয়ালিদ আশরাফ বলেন, উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে ক্ষমতাবান ব্যক্তি। তিনি নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে আশ্বাস দিয়েছেন, এ জন্য অনশন ভেঙেছেন। তবে যেহেতু তিনি কোনো তারিখ দেননি, তাই তিনি প্রতিদিনই কোনো না কোনো কর্মসূচি পালন করে যাবেন, দাবির ব্যাপারে সচেতনতা তৈরি করতে কাজ করবেন।

উপাচার্যের সঙ্গে এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাকসুদ কামাল, প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ওয়ালিদ আশরাফের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে প্রগতিশীল ছাত্র জোটও কর্মসূচি পালন করে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। একই সঙ্গে ডাকসু নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনরত সাধারণ শিক্ষার্থীরাও কর্মসূচি পালন করবেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন