লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় একটি পরিবারকে একঘরে করে রাখার অভিযোগে মসজিদের ইমামসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে উপজেলার ভাটাপাড়া গ্রাম থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার হওয়া দুজন হলেন উপজেলার ভাটাপাড়া জামে মসজিদের ইমাম ফজলুল হক ও একই ইউনিয়নের মজিবর রহমান।
এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, নয় মাস আগে উপজেলার ভাটাপাড়া গ্রামের রেজাউল করিম একটি মেয়ের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলেন। একপর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য গ্রাম্য মাতব্বরেরা একাধিক সালিস বৈঠক করেন। তাঁরা মেয়েটিকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত দেন। কিন্তু এক বিঘা জমি ছেলের নামে লিখে না দিলে বিয়ে হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয় ছেলের পরিবার। মাতব্বরেরাও এতে সায় দেওয়ায় অসহায় হয়ে পড়েন মেয়ের বাবা। গত ১২ জানুয়ারি তিনি ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেন। এদিকে জমি লিখে না দেওয়ায় ভাটাপাড়া জামে মসজিদের ইমাম ফজলুল হক গত শুক্রবার মেয়ের পরিবারকে একঘরে করে রাখার সিদ্ধান্ত দেন। আদিতমারী থানার ওসি আসলাম ইকবাল জানান, জমি লিখে দিলে একঘরে করা হবে না। না দিলে একঘরে করা হবে, গত শুক্রবারের দেওয়া এমন ঘোষণায় মেয়ের বাবা সোমবার রাতে গ্রেপ্তার হওয়া দুজনসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন