বিজ্ঞাপন

আইইবির নির্বাহী কমিটি ও কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের পক্ষে আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাদাৎ হোসেনের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আইইবি কৃত্য পেশাভিত্তিক প্রশাসন ও মন্ত্রণালয় গঠনের বিষয়ে প্রকৌশলী-কৃষিবিদ-চিকিৎসক সমন্বয়ে গঠিত প্রকৃচির মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে যুগপৎ আন্দোলন করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক দেশ, এখানে যে যে কাজের উপযুক্ত, তাঁকে দিয়ে সে কাজ করাতে হবে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, একটি বিশেষ ক্যাডার সব কুক্ষিগত করে রেখেছে। যার ফলে এই ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা নিয়মিত ঘটেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে সব দিক দিয়ে সমৃদ্ধির সোপানে নিয়ে যেতে যেভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন, একটি বিশেষ গোষ্ঠীর কারণে তা প্রায়ই প্রশ্নের সম্মুখীন হচ্ছে।

করোনার এই সময়ে প্রকৌশলী-কৃষিবিদ-চিকিৎসক এবং গণমাধ্যমের কর্মীরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু তাঁদের সেভাবে মূল্যায়ন করা হচ্ছে না। বর্তমান কার্যক্রম দেখে মনে হচ্ছে, দেশ আগের তুলনায় আরও বেশি আমলানির্ভর হয়ে যাচ্ছে এবং তাঁদের দৌরাত্ম্য আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। সব জায়গাতেই তাঁরা হস্তক্ষেপ করছেন। এটি অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। তা না হলে দেশপ্রেমিক, সৎ, নিবেদিতপ্রাণ অন্য পেশার লোকেরা তাঁদের দ্বারা নিগৃহীত হতেই থাকবেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন