কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যাকাণ্ডের এক বছর পূর্ণ হচ্ছে আজ সোমবার। এখন পর্যন্ত এ মামলার কোনো আসামি শনাক্ত করা হয়নি। দীর্ঘ সময়েও এ মামলার কোনো কিনারা করতে পারেনি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এ অবস্থায় তনু হত্যাকাণ্ডের বিচার নিয়ে শঙ্কিত পরিবারের সদস্যরা। গত বছরের ২০ মার্চ তনু নিহত হন।

মামলার অগ্রগতি সম্পর্কে তদন্ত কর্মকর্তা ও সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার জালাল উদ্দীন আহমেদ রোববার সন্ধ্যায় মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, শীতকালীন মহড়ার কারণে তিন মাস—নভেম্বর, ডিসেম্বর ও জানুয়ারিতে জিজ্ঞাসাবাদের প্রক্রিয়াতে ধীরগতি ছিল। ঘটনাস্থলে পাওয়া গুরুত্বপূর্ণ আলামত ফরেনসিক প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। এগুলো পেলে পুনরায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এ পর্যন্ত এ মামলায় শতাধিক সামরিক ও বেসামরিক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন বলেন, ‘মামলাটি বর্তমানে সিআইডি দেখছে। যত দিন আমরা দেখেছিলাম, তত দিন আপনাদের জানিয়েছি। এর বাইরে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই।’

গত বছরের ২০ মার্চ রাতে তনুর লাশ কুমিল্লার ময়নামতি সেনানিবাসের পাওয়ার হাউসের অদূরের কালভার্টের ২০ থেকে ৩০ গজ পশ্চিমে ঝোপ থেকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ২১ মার্চ তনুর বাবা ইয়ার হোসেন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন