বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। তবে পুলিশ সদস্যরা ছাত্রাবাসের ভেতরে যেতে পারেননি। এ ব‌্যাপারে সিলেট মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ বলেন, ছাত্রাবাসে আসন নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। তবে এতে কোন কোন ছাত্রসংগঠন জড়িত, তা প্রাথমিকভাবে জানা যায়‌নি।

default-image

সিলেট এম এ জি ওসমানী মে‌ডিকেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক বলেন, ঐতিহ্য সংস্কৃতি পরিষদ নামের জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত সংগঠনের কর্মীরা ছাত্রাবাসের বি ব্লকে অবস্থান করছিলেন। তিন দিন আগে ওই ব্লকে একটি রামদা পাওয়া যায়। বিষয়টি জানতে চাইলে বুধবার রাতে শিবিরের বহিরাগত নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে হামলা চালান ওই ব্লকের কয়েকজন। পরে তাঁদের হল থেকে বের করে দেওয়া হয়। তি‌নি বলেন, ছাত্রাবাসে বহিরাগত শিবিরের নেতা-কর্মীরাও থাকেন।

এদিকে রাত পৌনে একটার দিকে ছাত্রাবাস থেকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের মি‌ছিল দিয়ে রিকাবীবাজারের দিকে যেতে দেখা যায়। এ ব‌্যাপ‌ারে মে‌ডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ময়নুল হককে ফোন করা হলেও তি‌নি ধরেননি।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন