default-image

বসন্ত দিনে পিঠাপুলির ম-ম গন্ধ। রকমারি পিঠায় ভরপুর টেবিল। গত শুক্রবার কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে পিঠা উৎসবের আয়োজন করে প্রথম আলো বন্ধুসভার কক্সবাজার শাখা। বেলা তিনটায় উৎসব উদ্বোধন করেন কক্সবাজার বায়তুশশরফ কমপ্লেক্সের মহাপরিচালক এম এম সিরাজুল ইসলাম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার মেয়র সরওয়ার কামাল, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, কক্সবাজার বাঁচাও আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক আয়াছুর রহমান, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত পাল, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক মো. নজিবুল ইসলাম, কক্সবাজার সরকারি কলেজের শিক্ষক মুহাম্মদ উল্লাহ, কক্সবাজার বায়তুশশরফ জব্বারিয়া একাডেিমর প্রধান শিক্ষক মো. ছৈয়দ করিম, কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. নাছির উদ্দিন, ঝিনুকমালা খেলাঘর আসরের সভাপতি দীপক শর্মা, খেলাঘরের সভাপতি জাহেদ সরওয়ার, বন্ধুসভার জেলা সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, বন্ধুসভা কক্সবাজার সরকারি কলেজ শাখার সভাপতি ইব্রাহিম খলিল প্রমুখ। অতিথিদের বিভিন্ন পিঠার নাম ও ধরন সম্পর্কে ধারণা দেন বন্ধুসভার সদস্য মেহেজাবিন ও শাউলিন সুস্মিতা।
উৎসবে শীতের ঐহিত্যবাহী ‘আতিক্যা পিঠা’ নিয়ে আসেন ফাউজিয়া তাবাচ্ছুম। কলা পাতায় মোড়ানো বিন্নিচাল দিয়ে তৈরি এই পিঠার প্রতি নজর ছিল সবার। ভাপা পিঠা নিয়ে আসেন তাশমিলা। বসন্তের রঙিন ফুলের আদলে তৈরি শিমুল পিঠা নিয়ে আসেন সুবাহ সিনথিয়া। এ ছাড়া নানা পিঠা নিয়ে আসেন ধৃতি চাকমা, কানিজ ফাতেমা, আফরা অনিকা, পলি চৌধুরী, ফারিয়াল মৌমিতা, রাহা, অভি, মীম, দিশা, খালেদা আকতারসহ অনেকে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন