default-image

বাংলাদেশের কাছ থেকে করোনার টিকা নেবে না হাঙ্গেরি। দেশটির একটি পত্রিকা জানিয়েছে, কৃতজ্ঞতাস্বরূপ পাঁচ হাজার টিকা দিতে চেয়েছিল বাংলাদেশ। তবে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ টিকা তারা নেবে না।


জাতীয় সংসদে গত রোববার রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনা ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছিলেন, ইউরোপের দেশ হাঙ্গেরি বাংলাদেশের কাছে পাঁচ হাজার ডোজ করোনাভাইরাসের টিকা চেয়েছে। সেটা পাঠানো হবে। এ ছাড়া বলিভিয়াও টিকা চেয়ে চিঠি দিয়েছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিদ্ধান্ত দেবেন।


কিন্তু বৃহস্পতিবার হাঙ্গেরির ইংরেজি নিউজ পোর্টাল হাঙ্গেরি টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশের অনুদানের টিকা নেবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে এমন সিদ্ধান্তের কারণ সম্পর্কে মন্ত্রণালয় বিস্তারিত কোনো মন্তব্য করতে চায়নি। হাঙ্গেরির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘এমন প্রস্তাবের জন্য আমরা বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানিয়েছি। তবে তা আমরা গ্রহণ করব না।’

বিজ্ঞাপন

হাঙ্গেরি টুডের খবরে বলা হয়, ব্লিক নামের একটি ট্যাবলয়েড পত্রিকা গত বধুবার এক খবরে জানায় যে হাঙ্গেরির চিকিৎসকেরা বাংলাদেশের পাঁচ শতাধিক আগুনে পোড়া রোগীকে সেবা দেওয়ায় এবং যমজ বোন রাবেয়া–রোকেয়াকে আলাদা করায় কৃতজ্ঞতাস্বরূপ পাঁচ হাজার করোনার টিকা দিতে চেয়েছে বাংলাদেশ।


এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে প্রথম আলোর পক্ষ থেকে শুক্রবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তাঁদের ফোনে পাওয়া যায়নি। এই বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মন্তব্য জানতে মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তার কাছেও লিখিত প্রশ্ন পাঠানো হয়। রাতে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সেটিরও জবাব পাওয়া যায়নি।


এ বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের সঙ্গে শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রথম আলোর কথা হয়। তিনি বলেন, হাঙ্গেরিকে টিকা দেওয়ার কথাবার্তা তিনি শুনেছেন। কিন্তু তাঁর মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে কিছুই জানে না, কোনো আলোচনাও হয়নি। টিকা দিতে হলে সেটা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে জানাতে হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাংলাদেশ কেন অন্য দেশকে টিকা দিতে যাবে, বাংলাদেশই তো আরেক দেশ থেকে আনছে।’

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন