করোনায় আক্রান্ত পলাতক ব্যক্তির খোঁজ মিলেছে

বিজ্ঞাপন

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলায় প্রশাসন আর পুলিশের ভয়ে পলাতক করোনায় আক্রান্ত সেই ব্যক্তির খোঁজ মিলেছে। আজ মঙ্গলবার সকালে তাঁকে জেলা সদর হাসপাতালের ১০০ শয্যাবিশিষ্ট আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মামুন উর রশিদ তাঁর সন্ধান পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ এবং থানা–পুলিশ সূত্র জানায়, ঢাকার গাবতলী এলাকায় চা-বিস্কুটের দোকান আছে ওই ব্যক্তির (৫৮)। তিনি গত শনিবার সর্দি ও জ্বর নিয়ে সাটুরিয়ায় গ্রামের বাড়িতে আসেন। খবর পেয়ে পরদিন (রোববার) তাঁর নমুনা সংগ্রহ করেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। পরে নমুনা ঢাকার সাভারে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউটের ল্যাবে পাঠানো হয়। গতকাল সোমবার সকালে ওই ব্যক্তির করোনায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয় স্বাস্থ্য বিভাগ।

 করোনা পজিটিভ নিশ্চিত হওয়ার পর আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসাসেবাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মামুন উর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশরাফুল আলম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মতিয়ার রহমান মিঞাসহ স্বাস্থ্যকর্মীরা ওই ব্যক্তির বাড়ির দিকে রওনা হন। বিষয়টি মুঠোফোনে আক্রান্ত ব্যক্তিকে জানানো হয়। এর পরপরই আক্রান্ত ব্যক্তি পালিয়ে পাশের গ্রামের এক আত্মীয়ের বাড়িতে যান। সেখানেও উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ গিয়ে তাঁকে পায়নি।

 ওসি মতিয়ার রহমান মিঞা বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় প্রযুক্তির সহায়তা জানা যায়, তিনি ঢাকার গাবতলীতে অবস্থান করছেন। পরে সেখান থেকে তাঁকে বাড়িতে ফিরে আসতে বলা হয়।

 উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মো. মামুন উর রশিদ বলেন, রাতে আক্রান্ত ব্যক্তির স্বজনদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়। আক্রান্ত ব্যক্তিকে অভয় দেওয়া হয়। এরপর আজ সকালে তাঁকে এনে জেলা সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তাঁর সংস্পর্শে আসা পাঁচজনের নমুনা সংগ্রহের প্রস্তুতি চলছে।

 ইউএনও আশরাফুল আলম বলেন, করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিসহ তিনি যে বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন, সেই আত্মীয়ের বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন