জীবনে কোনো পরীক্ষায় শাহ এ এম এস কিবরিয়া দ্বিতীয় হননি। কর্মজীবনেও ছিলেন অতুলনীয়। এর পরও তাঁর কোনো দম্ভ ছিল না। তাঁর জ্ঞান-গরিমা ফুটে উঠত প্রতিটি কাজে। কিন্তু আচার-আচরণ ছিল খুবই মার্জিত।
দশম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এভাবেই সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া সম্পর্কে নিজেদের অভিব্যক্তি তুলে ধরেন বক্তারা। গতকাল শনিবার জাতীয় জাদুঘরে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে শাহ এ এম এস কিবরিয়া ফাউন্ডেশন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদ বলেন, কিবরিয়া সবার চেয়ে মেধাবী ছিলেন। কিন্তু আচার-আচরণে তা ফুটিয়ে তুলতেন না। তিনি প্রতিপক্ষকে কঠোর সমালোচনা করতেন। কিন্তু ভাষা ছিল মার্জিত। সংযত ভাষায় তীক্ষ্ণ জবাব দিতেন। ফলে কেউ আহত হতো না। সভাপতির বক্তব্যে ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, কিবরিয়ার হত্যা জাতীয় ট্র্যাজেডির অংশ। এর তদন্তে যে রহস্যাবৃত ঘটনা ঘটছে, তা দুঃখজনক। তাঁর হত্যাকারীদের বিচার হওয়া উচিত আইনের শাসনের জন্য।
কিবরিয়ার স্ত্রী আসমা কিবরিয়া বলেন, স্বামী এবং পরিবারের আরও সদস্যদের হারিয়ে তাঁর হৃদয় ভেঙে গেছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন