default-image

রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদে নৌকাডুবিতে পাঁচজন মারা গেছেন। পাঁচজনই নারী। আজ শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাঙামাটি কোতোয়ালি থানা সূত্র ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে। জেলার কাপ্তাই উপজেলায় পৃথক নৌকাডুবিতে তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাঙামাটি পর্যটন কমপ্লেক্সের নৌযান ঘাট থেকে ৩০-৪০ জন পর্যটক ইঞ্জিনচালিত নৌকায় হ্রদে ঘুরতে যান। নৌযান ঘাট থেকে দুই থেকে আড়াই কিলোমিটার দূরে দুপুর ১২টার দিকে জেলা প্রশাসকের বাসভবন এলাকায় পৌঁছালে নৌকাটি উল্টে যায়। এ সময় অন্যরা সাঁতারে তীরে ফিরলেও ওই পাঁচজন আসতে পারেননি। পরে প্রায় এক ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পর তাঁদের উদ্ধার করা হয়। পরে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসকেরা তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহত নারীরা হলেন রিনা আক্তার (৩২), শিলা আক্তার (২৭), আসমা আক্তার (২২) ও আফরোজা আক্তার (১৪)। আরেকজনের নাম জানা যায়নি। তাঁরা সবাই চট্টগ্রাম থেকে রাঙামাটিতে ছুটিতে ঘুরতে আসেন।

রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক মো. সৈকত আকবর বলেন, নৌকাডুবির ঘটনায় পাঁচজনকে নিয়ে আসা হয়েছে। হাসপাতালে আসার আগে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। চারজনের নাম পাওয়া গেছে।

কোতোয়ালি থানার সেকেন্ড অফিসার ( কর্মকর্তা) লিমন বোস প্রথম আলোকে বলেন, জেলা প্রশাসক বাসভবন-সংলগ্ন এলাকায় কাপ্তাই হ্রদে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। প্রথমে তিনজন আর পরে আর দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এদিকে দুপুর ১২টার দিকে কাপ্তাই উপজেলা কর্ণফুলী নদীর বগাচর এলাকায় নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আশরাফ উদ্দিন বলেন, নৌকাডুবিতে তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন। তাঁদের উদ্ধারের জন্য ডুবুরিরা চেষ্টা করছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন