লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলায় লালমনিরহাট-বুড়িমারী রেলপথে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালনকালে এক আনসার ও ভিডিপি সদস্য ট্রেনের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন। গত বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার উত্তর ঘনশ্যাম এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত ব্যক্তির নাম বিশ্বনাথ বর্মণ (৪৫)। তিনি কালীগঞ্জ উপজেলার শ্রীখাতা গ্রামের বিশ্বেশ্বর বর্মণের ছেলে। অবরোধ-হরতালে নাশকতার আশঙ্কায় লালমনিরহাট-বুড়িমারী রেলপথের ৮৪ কিলোমিটারে ৩৮৪ জন আনসার সদস্য পাহারার দায়িত্ব পালন করছেন। এঁদের মধ্যে বিশ্বনাথও ছিলেন। গত ১২ জানুয়ারি থেকে এ রেলপথের ৪৮টি পয়েন্টে দায়িত্ব পালনের জন্য জিআরপি পুলিশের তত্ত্বাবধানে তাঁদের নিয়োগ দেওয়া হয়।
লালমনিরহাট জিআরপি থানা সূত্রে জানা গেছে, গত বুধবার লালমনিরহাট রেলস্টেশন থেকে পাটগ্রামের বুড়িমারীর উদ্দেশে দেরিতে ছেড়ে যায় করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেন। গত বুধবার দিবাগত রাত সোয়া একটার দিকে রেলপথের উত্তর ঘনশ্যাম এলাকায় দায়িত্ব পালন করছিলেন বিশ্বনাথ। এ সময় অসাবধানতাবশত তাঁর হাতের লাঠি ট্রেনের লেগে গেলে তিনি ছিটকে লাইনের পাশে পড়ে যান। এতে মাথা ফেটে রক্তক্ষরণ হওয়ায় তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।
সংবাদ পেয়ে লালমনিরহাট জিআরপি পুলিশের সদস্যরা বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিশ্বনাথের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন