কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পৃথক ঘটনায় পানিতে ডুবে মা-ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু

বিজ্ঞাপন
default-image

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পৃথক ঘটনায় পানিতে ডুবে মা-ছেলেসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। আজ বুধবার বেলা তিনিটার দিকে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের সোনাতলা সাহেবনগর এলাকায় বন্যার পানিতে ডিঙি নৌকা ডুবে মা সেলিনা খাতুন (৩০) ও ছেলে সিয়ামের (১১) মৃত্যু হয়েছে।

আজ বেলা ১১টার দিকে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের পাকুড়িয়া গ্রামে পুকুরের পানিতে ডুবে তামান্না নামের ১০ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল জানান, ছোট ডিঙি নৌকায় চড়ে চারজন পদ্মার চরের তালতলা ঘাট থেকে সোনাতলা সাহেবনগর যাচ্ছিল। পথে মহাবুল বিশ্বাসের বাগানের কাছে ডিঙি নৌকাটি উল্টে ডুবে যায়। এ সময় সেলিনার বাবা রসুল মন্ডল (৬২) ও সেলিনার ছোট ছেলে সাগর (৯) সাঁতরিয়ে কিনারে উঠলেও পানিতে ডুবে মারা যান সেলিনা ও আরেক ছেলে সিয়াম। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁদের লাশ উদ্ধার করেন। পদ্মা নদীতে বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। ফলে চরাঞ্চলের মানুষের যোগাযোগের মাধ্যম এখন ডিঙি নৌকা।

অপর দিকে পুকুরের পানিতে ডুবে মারা যাওয়া তামান্না আদাবাড়িয়া ইউনিয়নের ধর্মদহ গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে এবং ধর্মদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

স্থানীয়রা জানান, তামান্না পাকুড়িয়া গ্রামে নানা হানিফের বাড়িতে বেড়াতে এসে বাড়ির পাশে পুকুরে গোলস করতে নামে। সাঁতার না জানার কারণে তামান্না ডুবে যায়। পরে স্থানীয়রা তার মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন