default-image

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় বিআরটিসি বাস ও প্রাইভেট কারের সংঘর্ষে একই পরিবারের তিনজনসহ চারজন নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল আটটার দিকে উপজেলার আরডিআরএস বাজারের পাশে রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়কের রায়পুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ব্যক্তিরা হলেন কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার গোড়াই পিয়ার মাস্টারপাড়া গ্রামের আকবর হোসেন (৬২), তাঁর স্ত্রী বিলকিছ বেগম (৪৫) ও ছেলে বেলাল হোসেন (২৬) এবং  প্রাইভেট কারের চালক দেলবর হোসেন।

পুলিশ ও নিহত লোকজনের স্বজনদের সূত্র জানায়, আজ সকালে নরসিংদী জেলার শিশু পরিবারে কর্মরত সিনিয়র কারিগরি প্রশিক্ষক আকবর হোসেন তাঁর স্ত্রী বিলকিছ বেগম, ছেলে বেলাল হোসেন ও মেয়ে আয়শা সিদ্দিকাকে (১৪) নিয়ে প্রাইভেট কারে গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন। ভাড়ায় চালিত ওই প্রাইভেটকারে চার যাত্রী এবং চালক ও তাঁর সহকারী ছিলেন। সকাল ৮টায় কুড়িগ্রাম আরডিআরএস বাজারের কাছে পৌঁছালে কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা বিআরটিসি বাসের সঙ্গে প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাইভেট কারের চালক দেলবর হোসেন মারা যান ও অপর পাঁচজন আহত হন। ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন আহত লোকজনকে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আকবর হোসেন, তাঁর স্ত্রী বিলকিছ বেগম ও ছেলে বেলাল হোসেন মারা যান। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আকবর হোসেনের মেয়ে আয়শা সিদ্দিকাকে রংপুর মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। এ ছাড়া এই দুর্ঘটনায় আহত প্রাইভেট কারের চালকের সহকারী (১৩) কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ।

কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. নাজিম উদ্দিন সড়ক দুর্ঘটনায় আকবর হোসেন, তাঁর স্ত্রী বিলকিছ বেগম ও ছেলে বেলাল হোসেনের এবং প্রাইভেটকারের চালক দেলবর হোসেনের মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0