বিএনপি দাবি করেছে, গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করে এখন কেবল টেলিভিশনেই নিজেদের অস্তিত্ব প্রকাশ করে চলেছে সরকার। গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমদ এ দাবি করেন।
বিবৃতিতে সালাহ উদ্দিন আহমদ অভিযোগ করেন, গণবিরোধী গণমাধ্যম নীতিমালা প্রণয়ন করে ভয়ভীতি প্রদর্শন, সংবাদপত্র ও টিভি চ্যানেল বন্ধ করে এবং সম্পাদক ও টিভি চ্যানেলের মালিকদের গ্রেপ্তার করে সরকার এখন টেলিভিশনেই নিজেদের অস্তিত্ব প্রকাশ করে চলেছে। তিনি সরকারকে উদ্দেশ করে বলেন, টেলিভিশনের বাক্স থেকে বেরিয়ে এসে জনগণের আওয়াজ শুনুন, পুলিশের পাহারা ছেড়ে মন্ত্রী-নেতাদের রাস্তায় এবং এলাকা সফর করতে বলুন। তাহলেই সরকারের দিগম্বর দানবীয় চেহারা পরিলক্ষিত হবে।
বিবৃতিতে বলা হয়, দেশ ও জাতি আজ রাষ্ট্রীয় নৈরাজ্যের চূড়ান্ত শিকারে পরিণত হয়েছে। মানুষের মৌলিক ও মানবাধিকারের শেষ চিহ্নটুকুও বিলুপ্তপ্রায়। রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, গুম, খুন, অপহরণ, জুলুম-নির্যাতন, হামলা-মামলা ও গণগ্রেপ্তারের দায়ভার হুকুমদাতা হিসেবে প্রধানমন্ত্রীকেই নিতে হবে।
বিবৃতিতে দাবি করা হয়, সরকার বিচার বিভাগকে বিরোধী দল ও ভিন্নমত দমনের হাতিয়ারে পরিণত করেছে। বর্তমান অবৈধ সরকার গণতন্ত্র পুনঃ উদ্ধারের আন্দোলনকে দমনের শেষ চেষ্টা হিসেবে আদালতকে ব্যবহার করে নিজেদের রাজনৈতিক দেওলিয়াত্বকেই স্বীকার করে নিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন