এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মো. মোক্তার হোসেন প্রায় ১০ বছর আগে চারতলা ভবনটি নির্মাণ করেন। ভবনটিতে পাঁচটি পরিবার বসবাস করত। প্রথম দফায় তিনি বাড়িটি তিনতলা পর্যন্ত নির্মাণ করেন। পরে আরও একতলা সম্প্রসারণ করে ভবনটি চারতলা পর্যন্ত নির্মাণ করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে চারতলা ভবনটি পাশের ছয়তলা ভবনের ওপর হেলে পড়ে। এরপর থেকে বাড়ির লোকজন অন্যত্র আশ্রয় নেয়।

ভবনটি হেলে পড়ার সংবাদ পেয়ে কেরানীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী শাহজাহান আলী, কেরানীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান, কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ছালাম মিয়াসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তা, ফায়ার সার্ভিস ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসান জানান, প্রাথমিকভাবে ভবনের বসবাসরত ব্যক্তিদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে এনে ভবনটিকে সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশলী ভবনটি পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।