মুক্তিযুদ্ধকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার আসামি লুৎফর মোড়ল (৭৫) গতকাল শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। তাঁর বাড়ি যশোরের কেশবপুর উপজেলার পয়চাকরা গ্রামে।
ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্তব্যরত কারারক্ষী জাকারিয়া বলেন, গত ৪ এপ্রিল ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে লুৎফরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।
লুৎফরের বড় ছেলে মো. আবদুল কুদ্দুস প্রথম আলোকে বলেন, মরদেহ কেশবপুরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। শনিবার (আজ) তাঁকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
যশোরের সাবেক সাংসদ সাখাওয়াত হোসেনসহ নয়জনের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের যে মামলার বিচার চলছে, লুৎফর সেই মামলার আসামি। মুক্তিযুদ্ধের সময় কেশবপুর এলাকায় হত্যা, ধর্ষণ, আটক, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ ও লুণ্ঠনের অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁদের বিরুদ্ধে।
২০১২ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি মোট ১২ জনের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়। ২০১৫ সালের ১৮ জুন তদন্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত করে মানবতাবিরোধী অপরাধ তদন্ত সংস্থা। তবে ৮ সেপ্টেম্বর তিনজনের বিরুদ্ধে প্রাথমিক অভিযোগের (প্রাইমা ফেসি) উপাদান না থাকায় তাঁদের অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন ট্রাইব্যুনাল।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন