default-image

চলমান করোনাভাইরাসের (কোভিড–১৯) মহামারিতে এক বছরে বিশ্বে ৬৮টি দেশের কমপক্ষে ৮৪০ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশে মারা গেছেন ৪৪ জন। কোভিডে সাংবাদিকের মৃত্যুর সংখ্যায় বাংলাদেশের অবস্থান ষষ্ঠ।

জেনেভাভিত্তিক সংগঠন প্রেস এমব্লেম ক্যাম্পেইন (পিইসি) বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।
সাংবাদিকদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা বেসরকারি সংস্থা পিইসি।

বৃহস্পতিবার সংগঠনটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এই প্রথম বিশ্বে এত বেশি সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। সংস্থাটির মহাসচিব ব্লেইস লেমপেন বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে এই বিপুলসংখ্যক সাংবাদিকের মৃত্যুতে পিইসি দুঃখ প্রকাশ করছে এবং মৃতদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানায়। এমন পরিস্থিতিতে সাংবাদিকদের দ্রুত টিকাদান কর্মসূচির আওতায় আনা উচিত, যাতে মাঠপর্যায়ে তাঁরা জীবন বিপন্ন না করেই নিজেদের কাজগুলো করে যেতে পারে। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতেও মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেশি দেখা যাচ্ছে এবং আমরা আশা করি তা কমে আসবে।’

বিজ্ঞাপন

পিইসি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, স্থানীয় গণমাধ্যম, সাংবাদিকদের জাতীয় সংগঠন ও পিইসির আঞ্চলিক প্রতিনিধিদের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে এই পরিসংখ্যান তৈরি করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, মোট ভুক্তভোগীর সংখ্যা নিশ্চিতভাবেই অনেক বেশি। কারণ, অনেক ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের মৃত্যুর কারণ সুনির্দিষ্ট করা হয়নি বা তাঁদের মৃত্যুর বিষয়টি ঘোষিত হয়নি। কিছু দেশে নির্ভরযোগ্য তথ্যেরও অভাব আছে।


পিইসি বলছে, ২০২০ সালের মার্চ থেকে ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৮৪০ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। এর অর্ধেকেরই মৃত্যু হয়েছে লাতিন আমেরিকায়। এ অঞ্চলের ১৮ দেশে ৪৫৮ জন মারা গেছেন। এশিয়া অঞ্চলে ১৭টি দেশে ১৫১ জনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে ইউরোপের ১৬ দেশে ১৪৭ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। উত্তর আমেরিকার ২ দেশে মারা গেছেন ৪৫ জন। আর আফ্রিকা অঞ্চলে ১৫ দেশে মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জন সাংবাদিকের।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পেরুতে গত বছরের মার্চ থেকে এ পর্যন্ত ১০৮ জন গণমাধ্যমকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। চলতি বছরের শুরু থেকে ব্রাজিলে সাংবাদিকদের মৃত্যুর হার বেড়ে যায়। গত দুই মাসে সে দেশে ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সব মিলিয়ে দেশটিতে মোট ১০২ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। ওদিকে মেক্সিকোতে কোভিড-১৯ মহামারিতে মারা গেছেন ৮৭ জন সাংবাদিক।


পিইসির দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫৬ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। ইউরোপের মধ্যে ইতালিতে সাংবাদিকের মৃত্যু সবচেয়ে বেশি, ৪৬ জন। বাংলাদেশে ৪৪ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৪৪ জনের। এ ছাড়া যুক্তরাজ্যে ২৬ জন, পাকিস্তানে ২৩ জন, রাশিয়াতে ১৩ জন ও স্পেনে ১২ জন সাংবাদিকের মৃত্যু হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন