বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কোয়ালিশন ফর উইমেন ইন জার্নালিজমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, ভারত, ইরান, পাকিস্তান, তুরস্কসহ ছয়টি দেশের সাতজন নারী সাংবাদিক আইনি হয়রানির শিকার হয়েছেন। এ তালিকায় বাংলাদেশ থেকে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের নাম রয়েছে।

গত সেপ্টেম্বরে দণ্ডবিধি ও অফিশিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের মামলায় জব্দ করা রোজিনা ইসলামের প্রেস অ্যাক্রেডিটেশন কার্ড, দুটি মুঠোফোন ও পাসপোর্ট ফেরত চেয়ে করা আবেদন নাকচ করেছেন আদালত।

পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে গত ১৭ মে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে প্রায় ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে হেনস্তা ও নির্যাতন করা হয়। সেদিন রাত সাড়ে আটটার দিকে তাঁকে শাহবাগ থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। আর রাত পৌনে ১২টার দিকে তাঁর বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় মামলা করা হয়। এই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় গত ২৩ মে জামিনে ছাড়া পান।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, সেপ্টেম্বরে তথ্য সংগ্রহ কিংবা প্রতিবেদন তৈরি করতে গিয়ে বিশ্বের ১২ জন নারী সাংবাদিক হামলার শিকার হয়েছেন। এ সময় লেবানন, তুরস্ক, যুক্তরাষ্ট্রে নারী সাংবাদিকদের ওপর হামলা হয়েছে।

এ ছাড়া আফগানিস্তান, নাইজেরিয়া, মন্টেনেগ্রো, স্লোভেনিয়া, তিউনিসিয়া, তুরস্কের ১০ নারী সাংবাদিক শারীরিক নিগ্রহের শিকার হয়েছেন বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। গত সেপ্টেম্বরে বেলারুশ, চীন, মিয়ানমার, পোল্যান্ড ও রাশিয়ায় সাত নারী সাংবাদিককে বিভিন্ন অভিযোগে আটক করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন