default-image

ক্যাসিনো এবং জুয়াবিরোধী অভিযান নিয়ে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিয়েছিলেন চট্টগ্রামের দুই আওয়ামী লীগ নেতা। এ নিয়ে দুই নেতার মধ্যে শীতল সম্পর্ক বিরাজ করছিল। পরে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট নিয়ে দুজনে আবার এক কাতারে চলে আসেন।

এই দুই নেতা হলেন জাতীয় সংসদের  হুইপ সামশুল হক চৌধুরী ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। আজ শনিবার থেকে চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে শেখ কামাল কাপ ফুটবলের তৃতীয় আসর। চট্টগ্রাম আবাহনীর আয়োজনে অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের সহযোগিতায় রয়েছে চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকএস)।

টুর্নামেন্ট সফল করতে এই দুই নেতা প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে নানা সভা–সমাবেশ করে আসছেন। দুজন বারবার এক মঞ্চে এসে বক্তব্য দিচ্ছেন। গতকাল শুক্রবার এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের সর্বশেষ প্রস্তুতি তদারকিতে দেখা যায় দুজনকে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রেডিসন ব্লু চিটাগং বেভিউ হোটেলে টুর্নামেন্টের ট্রফি মেয়রের কাছে হস্তান্তর করেন সামশুল হক চৌধুরীসহ অতিথিরা।

সামশুল হক চৌধুরী বলেন, ‘একটি সফল টুর্নামেন্ট করার জন্য দুজনে কাজ করে যাচ্ছি।’

এক প্রশ্নের জবাবে পটিয়ার এই সাংসদ বলেন, ‘আমাদের ভেতর কিছু নেই। সব মিডিয়ার সৃষ্টি।’

উল্লেখ্য, ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পর গত ২২ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে প্রথম আলোর কাছে হুইপ চট্টগ্রামের ক্লাবগুলোতে অভিযানের বিষয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, তাস খেলা বন্ধ করলে ক্লাবগুলো চলতে পারবে না। তিনি অবশ্য ক্যাসিনো ও জুয়ার বিরুদ্ধে বক্তব্য দেন।

এর পরদিন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এক অনুষ্ঠানে বলেন, ক্লাব পরিচালনার দোহাই দিয়ে জুয়া জায়েজ করার কোনো সুযোগ নেই। পরে নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও আ জ ম নাছির উদ্দীন এক বিবৃতিতে বলেন, চলমান অভিযানের বিরোধিতাকারীরা গণদুশমন।

এসব কারণে এই দুই নেতা সম্পূর্ণ বিপরীতমুখী অবস্থানে ছিলেন। পরবর্তীতে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবলের প্রস্তুতি শুরু হলে নতুন করে দুজনকে সভা–সমিতিতে দেখা যায়। ২৯ সেপ্টেম্বর হোটেল রেডিসনে টুর্নামেন্টের এক প্রস্তুতি সভায় দুজনকে এক মঞ্চে দেখা যায়।

>

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট নিয়ে দুজনের বিরোধ মীমাংসা।

এরপর গত বুধবার চট্টগ্রাম সিটি করপরোরেশন কার্যালয়ের মিলনায়তনে মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে দুই আওয়ামী লীগ নেতা পাশাপাশি বসে বক্তব্য দেন। চট্টগ্রাম আবাহনীর মহাসচিব সামশুল হক চৌধুরী এই টুর্নামেন্টের সদস্যসচিব। আর চট্টগ্রাম ব্রাদার্স ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন টুর্নামেন্ট কমিটির সহসভাপতি। 

সংবাদ সম্মেলনে সেদিন সামশুল হক চৌধুরী সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, ‘আমি সহজ সরল মানুষ মনে যা আসে বলে ফেলি। ভুলত্রুটি মানুষের থাকতে পারে।’ ওই সংবাদ সম্মেলনের আগে মেয়রের কক্ষে যান হুইপ। এ সময় মেয়র তাঁকে আপ্যায়ন করেন।

সিটি মেয়র নাছির বলেন, ‘আমাদের দুজনের মধ্যে ব্যক্তিগত কোনো বিরোধ নেই। আমরা যেকোনো মূল্যে এই টুর্নামেন্টটি সফল করতে চাই। কারণ এটা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু পুত্র শেখ কামালের নামে টুর্নামেন্ট। তবে প্রধানমন্ত্রী ক্যাসিনো এবং জুয়ার বিরুদ্ধে যে অভিযান শুরু করেছেন তার পক্ষে আমার অবস্থান। চট্টগ্রামে কোনো ক্লাবে জুয়া চলতে পারবে না। ’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন