বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রুমিন বলেন, নিরাপত্তা লাভের অধিকার প্রতিটি নাগরিকের সমান। মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যাকাণ্ডের পর কিছুদিন বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বন্ধ ছিল। এখন আবার সেই বর্বরতা শুরু হয়েছে। শিল্প প্রতিমন্ত্রী সম্প্রতি বলেছেন, তিনি ক্রসফায়ার সমর্থন করেন।

শিল্প প্রতিমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে রুমিন বলেন, তিনি অন্তত পুরোনো গল্প ফেঁদে বসেননি। তিনি তাঁর মতো পরিষ্কারভাবে জানিয়েছেন যে তিনি ক্রসফায়ারের পক্ষে। কিন্তু সরকারের কাছে প্রশ্ন, বিচারবহির্ভূত হত্যার মতো বীভৎস বিষয়কে সমর্থন করে এ ধরনের উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার কারণে শিল্প প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সরকার কী ব্যবস্থা নেবে?

রুমিন বলেন, গত ১০ বছরে দেশে গুম হয়েছে ৫৩৬ জন। বিচারবহির্ভূত হত্যা হয়েছে ২ হাজার ১৮৮টি। হেফাজতে নির্যাতনে মারা গেছেন ১২৮ জন। খেয়ালখুশি গ্রেপ্তারের শিকার হয়েছেন কয়েক হাজার মানুষ।

রুমিন বলেন, ‘আমরা এমন এক দেশে বাস করি, যেখানে বিচার চাইতে হয়। শুধু বিচার চাইলে হয় না, ঘটনাটি অতি আলোচিত হতে হয়। আবার শুধু আলোচিত হলে হয় না, সে ঘটনার সঙ্গে যদি শক্তিশালী ক্ষমতাধর কেউ যুক্ত থাকে, তখন আর বিচার পাওয়া যায় না। যেমন ত্বকী বা সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড।’

সম্প্রতি রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার। সেখানে তিনি ক্রসফায়ার সমর্থন করে বক্তব্য দেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন