default-image

বিয়ে ও তালাকের ক্ষেত্রে পক্ষগুলোর ছবিসহ ডিজিটাল নিবন্ধনের জন্য তিন দিনের মধ্যে পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ জানিয়ে তিন সচিবকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

ক্রিকেটার নাসিরের সদ্য বিবাহিত স্ত্রী তামিমা সুলতানার আগের স্বামী দাবি করা রাকিব হাসান, আরও দুই ব্যক্তি ও এক সংগঠনের পক্ষে আজ সোমবার ওই আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। তাদের পক্ষে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে ওই নোটিশ পাঠান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইশরাত হাসান।

বিজ্ঞাপন

আইনসচিব, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিসচিব এবং ধর্মসচিব বরাবরে ওই নোটিশ পাঠানো হয়। নোটিশদাতা অপর দুই ব্যক্তি হলেন ঢাকার উত্তর কমলাপুরের বাসিন্দা সোহাগ হোসেন ও নোয়াখালীর কাশিপুরের বাসিন্দা কামরুল হাসান। নোটিশদাতা সংগঠন হচ্ছে এইড ফর ম্যান ফাউন্ডেশন।

নোটিশের ভাষ্য, প্রথম বিয়ে এবং বিয়ের তথ্য গোপন করে আবার বিয়ে করার অনেক অভিযোগ গণমাধ্যমে দেখা যায়। বিদ্যমান আইনে বিয়ে ও তালাক রেজিস্ট্রেশনের বিধান আছে, যেখানে তথ্যপ্রযুক্তি–সংবলিত পদ্ধতি অনুসরণ করা হয় না।

আইনজীবী ইশরাত হাসান প্রথম আলোকে বলেন, বিয়ে ও তালাকের ক্ষেত্রে তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর তথা ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন না হওয়ায় প্রতারণার ঘটনা ঘটছে। স্বামী বা স্ত্রী বিয়ের তথ্য গোপন করে অনেক ক্ষেত্রে আবার বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।

ডিজিটালাইজেশন না হওয়ায় বিয়ে ও তালাকের রেজিস্ট্রেশন ব্যবস্থাপনায় মানুষের সুরক্ষার অধিকারে নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। বিবাহ ও তালাকের ক্ষেত্রে ডিজিটাল আর্কাইভের অনুপস্থিতিতে অনেক সময় সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে জটিলতা দেখা যায়।

আইনজীবী ইশরাত হাসান বলেন, তাই বিয়ে ও তালাকের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন আনুষ্ঠানিকভাবে ডিজিটাল হওয়া জরুরি। বর–কনের ছবিসহ বিয়ে ও তালাকের রেজিস্ট্রেশন ডিজিটালাইজ হলে তথ্যের সত্যতা যাচাই করা যাবে—এসব দিক তুলে ধরে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে তিন সচিব বরাবর ওই নোটিশ পাঠানো হয়েছে। তিন দিনের মধ্যে জবাব না পেলে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন