default-image

যুক্তরাজ্য থেকে বাংলাদেশে আনা জাহাজ ভাঙতে গিয়ে শ্রমিকেরা অনেক সময় আহত হন। কর্মক্ষেত্রে দুর্ঘটনায় মারাও যান অনেকে। শ্রমিকেরা আহত বা নিহত হলে এত দিন সেই মালিকদের বিরুদ্ধে যুক্তরাজ্যে মামলা করার আইনি ভিত্তি ছিল না। অবশেষে মিলেছে সেই সুযোগ।

যুক্তরাজ্যের একটি আদালত বলেছেন, এ ধরনের ঘটনার ক্ষেত্রে আহত শ্রমিক বা নিহত শ্রমিকের স্বজনেরা সংশ্লিষ্ট ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করতে পারবেন।

যুক্তরাজ্যের দ্য গার্ডিয়ান–এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কোর্ট অব আপিল অব ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসের এক আদেশে এ মামলা করার সুযোগের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। শুধু যুক্তরাজ্যে নয়, সর্বোচ্চ পর্যায়ের আদালত থেকে আসা এমন আদেশ এই প্রথম।

২০১৮ সালে চট্টগ্রামের একটি শিপইয়ার্ডে যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিপিং কোম্পানি ‘মারান’-এর তিন লাখ টনের একটি অয়েল ট্যাংকার ভাঙার কাজ চলছিল। ওই সময় দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মারা যান খালিদ মোল্লাহ। যথাযথ আইনি ভিত্তি না থাকায় সংশ্লিষ্ট ব্রিটিশ কোম্পানির বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করতে পারছিলেন না নিহত শ্রমিকের স্ত্রী হামিদা বেগম। এখন ব্রিটিশ আদালতের এ রায়ের ফলে লন্ডনে মারানের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করতে পারবেন হামিদা বেগম।

বিজ্ঞাপন

আদালত বলেছেন, ব্রিটিশ শিপিং কোম্পানিগুলো বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানের শিপইয়ার্ডগুলোর কাছে ভাঙাচোরা পুরোনো জাহাজ বিক্রি করে। বিপজ্জনক পরিবেশ ও কম খরচে এসব দেশে জাহাজ ভাঙা হয়ে থাকে। কাজেই জাহাজ ভাঙার সঙ্গে সম্পৃক্ত শ্রমিকদের দেখভালের দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট কোম্পানিকে নিতে হবে। কোনো শ্রমিক কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় আহত হলে কিংবা মারা গেলে সেই কোম্পানির কাছে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবে পরিবার।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন