সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ কাভার্ড ভ্যান ট্রাক প্রাইমমুভার পণ্য পরিবহন মালিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব জাফর আহম্মদ। উপস্থিত ছিলেন আন্তজেলা মালামাল পরিবহন সংস্থা ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান মালিক সমিতির সভাপতি লতিফ আহাম্মদ, বাংলাদেশ ট্রাক চালক শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওয়াজি উল্লাহ্ প্রমুখ।

কনটেইনার ডিপোতে নিরাপত্তাব্যবস্থা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে জাফর আহমদ বলেন, বেসরকারি কনটেইনার ডিপো পরিচালনায় আইসিডি নীতিমালা-২০১৬ ও দেশীয় বেশ কিছু আইন মেনে চলতে হয়। বিএম ডিপোতে এসব বিষয় মানা হলে প্রাণহানি ও সম্পদের ক্ষতি এড়ানো যেত। ডিপোর মালিকপক্ষ নিয়মনীতি উপেক্ষা করার কারণেই প্রাণহানি ও শতকোটি টাকার সম্পদ নষ্ট হয়েছে। তাই মালিকপক্ষ, বন্দর কর্তৃপক্ষ ও সরকার এই দায় এড়াতে পারে না।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, হতাহতদের জন্য ডিপোর মালিকপক্ষ নগণ্য আর্থিক ক্ষতিপূরণের ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু ধ্বংসপ্রাপ্ত গাড়িগুলোর মালিকদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়ে মালিকপক্ষ এখনো নীরব। কিন্তু গাড়ির মালিককে ক্ষতিপূরণ দিতেই হবে। আহত ব্যক্তিদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে। পাশাপাশি নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যদের আর্থিক ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এসব দাবি মানা না হলে মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে আন্দোলনে যাওয়া ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন