জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বাদীর দেওয়া সাক্ষ্য প্রত্যাহার করার আবেদন নাকচ করে দিয়েছেন আদালত। খালেদা জিয়ার পক্ষে জেরা করার জন্য ১৮ জুন দিন ধার্য করেছেন আদালত।

ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আবু আহমেদ জমাদার শুনানির এই তারিখ ধার্য করেন। আজ সোমবার ঢাকার বকশীবাজার এলাকার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ভবনে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩-এ মামলার বিচারকাজ শুরু হয়। আদালতে হাজিরা দেন খালেদা জিয়া।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে পৃথক এক আবেদনে মামলার সাক্ষী ও বাদী দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তা হারুনুর রশিদের জবানবন্দি প্রত্যাহার করার আবেদন জানানো হয়। আদালত আবেদন নাকচ করে দেন। পরে আইনজীবীরা জানান তাঁরা জেরার জন্য প্রস্তুত নেই। সময় চেয়ে তাঁরা পৃথকভাবে আবেদন করেন। আদালত তা মঞ্জুর করেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, তাঁরা হাইকোর্টে আবেদন জানাবেন।

আজ মামলায় সাক্ষ্য-জেরার দিন ধার্য ছিল। মামলায় হাজিরা দিতে সকাল ১০টার কিছু আগে গুলশানের বাসভবন থেকে আদালতের উদ্দেশে রওনা হন বিএনপির চেয়ারপারসন। বেলা ১১টার কিছু আগে আদালতে পৌঁছান তিনি।

মামলার শুনানি ও খালেদা জিয়ার হাজিরাকে কেন্দ্র করে আদালত ও এর আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

এর আগে ৫ মে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে বাদীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। সেদিন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আবু আহমেদ জমাদার ২৫ মে পরবর্তী সাক্ষ্য-জেরার তারিখ ধার্য করেন।

এর আগে ২৫ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়া আদালতে হাজির না হওয়ায় তাঁর জামিন বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। ৫ এপ্রিল আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন তিনি।

default-image
বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন