খুলনা বিভাগে করোনা রোগী সাড়ে ১২ হাজার ছাড়াল

বিজ্ঞাপন
default-image

খুলনা বিভাগে করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) সংক্রমিত হিসেবে শনাক্ত ব্যক্তির সংখ্যা সাড়ে ১২ হাজার ছাড়িয়েছে। বিভাগে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ার পর বুধবার ১৪০তম দিনে রোগীর সংখ্যা দাঁড়ায় ১২ হাজার ৮১৮।

এদিকে খুলনা, যশোর, কুষ্টিয়ার পর বিভাগের চতুর্থ জেলা হিসেবে ঝিনাইদহে কোভিড রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ছাড়িয়েছে।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা। তিনি জানান, খুলনা বিভাগে মঙ্গলবার সকাল আটটা থেকে বুধবার সকাল আটটা পর্যন্ত নতুন ৩২০ জন শনাক্ত হন। বিভাগে নতুন করে ২৭০ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ হলেন ৮ হাজার ৭৮ জন। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থতার হার ৬৩ শতাংশের কিছুটা বেশি।

বিভাগের মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ১৯ মার্চ। পরবর্তী ৭৩ দিনে শনাক্তের সংখ্যা ৫০০ ছাড়ায়। গত ২৮ জুলাই ১৩২তম রোগীর সংখ্যা ১১ হাজার ছাড়ায়। গত ১ আগস্ট ১৩৬তম দিনে রোগী সংখ্যা ১২ হাজার পার করে।

বিভাগে নতুন শনাক্ত হওয়া ৩২০ জনের মধ্যে খুলনা জেলায় ৪৯ জন, বাগেরহাটে ২ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৩০ জন, যশোরে ৪৩ জন, ঝিনাইদহ ২৯, কুষ্টিয়া ৭৪ জন, মাগুরায় ২৬ জন, মেহেরপুরে ২৮ জন, নড়াইলে ২৭ জন এবং সাতক্ষীরায় ১২ জন রয়েছেন। আর বিভাগে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত মোট ১২ হাজার ৮১৮ জনের মধ্যে ৪ হাজার ৪৭৫ জনই খুলনা জেলার। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৬৩৬ জন, চুয়াডাঙ্গায় ৬৮৮, যশোরে ১ হাজার ৯৪৬, ঝিনাইদহে ১ হাজার ১৬ জন, কুষ্টিয়ায় ১ হাজার ৭৪৯, মাগুরায় ৪৯৪, মেহেরপুরে ২১৬, নড়াইলে ৮৩০ ও সাতক্ষীরাতেও ৭৬৮ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন।

এদিকে বিভাগে করোনায় সংক্রমিত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির সংখ্যা এখন ২২৬। খুলনা জেলায় সবচেয়ে বেশি ৭০ জন মারা গেছেন। এ ছাড়া কুষ্টিয়ায় ৩৫ জন, যশোরে ২৯ জন, সাতক্ষীরায় ২২ জন, ঝিনাইদহে ১৭ জন, বাগেরহাটে ১৫ জন, নড়াইলে ১২ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১১ জন, মাগুরায় ৮ জন, মেহেরপুরে ৭ জন মারা গেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন