চট্টগ্রাম নগরের শেখ মুজিব সড়কের নিচ দিয়ে যাওয়া বক্স কালভার্ট থেকে মাটি তোলার কাজ শেষ হয়েছে এক সপ্তাহ আগে। কিন্তু মাটি তোলার জন্য সড়কের বাদামতলী থেকে বারিক বিল্ডিং মোড় পর্যন্ত অংশের খোলা ম্যানহোলগুলোর ঢাকনা বন্ধ করা হয়নি। এতে দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে ব্যস্ততম এই সড়কে যান চলাচল করছে।
গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক দিয়ে যেতে হয় চট্টগ্রাম বন্দর, কাস্টম, ইপিজেড ও পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত এলাকায়।
নগরের আগ্রাবাদের বাদামতলী মোড় থেকে বারিক বিল্ডিং মোড় পর্যন্ত সড়কের আধা কিলোমিটার অংশে পাঁচটি স্থান থেকে মাটি তোলা হয়। গতকাল শুক্রবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, ইস্পাতের পাটাতন দিয়ে দুটি ম্যানহোলের মুখ কোনোরকমে ঢেকে দেওয়া হয়েছে। অন্য তিনটি খোলা অবস্থায় পড়ে আছে। সতর্কতার জন্য ম্যানহোলের দুই পাশে ময়লার স্তূপ ও বাঁশের খুঁটি দেওয়া হয়েছে।
চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, নগরের দেওয়ানহাটের ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের চট্টগ্রাম কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হওয়া বক্স কালভার্টটি বাদামতলী ও বারিক বিল্ডিং মোড় হয়ে কর্ণফুলী নদীতে গিয়ে শেষ হয়েছে। এর দৈর্ঘ্য আড়াই কিলোমিটার। গত মার্চ থেকে এই কালভার্টের মাটি তোলার কাজ শুরু হয়। দেওয়ানহাট থেকে বাদামতলী মোড় পর্যন্ত অংশের কাজ শেষে ম্যানহোলগুলোর মুখ ঢেকে দেওয়া হয়েছে। তবে বাদামতলী মোড় থেকে বারিক বিল্ডিং মোড় পর্যন্ত অংশের কাজ শেষ হলেও ম্যানহোলগুলো খোলা অবস্থায় পড়ে আছে।
সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম গতকাল প্রথম আলোকে বলেন, শেখ মুজিব সড়কের বক্স কালভার্ট থেকে মাটি অপসারণের কাজ সপ্তাহ খানেক আগে শেষ হয়েছে। দু-এক দিনের মধ্যে খোলা ম্যানহোলগুলোর মুখে ঢাকনা দেওয়া হবে।
বাসচালক আবদুল হাই বলেন, সড়কের ওপর ম্যানহোলগুলো খোলা থাকার কারণে গাড়ি চালাতে হয় সাবধানে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন