বাংলাদেশের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ে যা যা করণীয়, সব উদ্যোগ সরকার নেবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের গণহত্যার স্বীকৃতির জন্য আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অবশ্যই প্রচেষ্টা চালাবে। প্রয়োজনে তারা একটি আলাদা সেল গঠন করবে।’

গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম আয়োজিত ‘গণহত্যা ১৯৭১: ইতিহাস ও দায়বদ্ধতা’ শীর্ষক সেমিনারে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, একাত্তরে পাকিস্তান যখন বাংলাদেশে গণহত্যা চালিয়েছিল, তখন জাতিসংঘকে তাদের পক্ষ নেওয়ার জন্য বিশ্বের যে মোড়লেরা কাজ করত, তারা এখনো সদর্পে এটাকে নিয়ন্ত্রণ করছে। কাজেই জাতিসংঘের কাছ থেকে এই স্বীকৃতি আদায়ে আরও বেশি সোচ্চার, সক্রিয় এবং ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি মফিদুল হক বলেন, ‘আজকে যখন আমরা জাতীয়ভাবে গণহত্যা দিবস পালন করব, তখন বিশ্বসম্প্রদায়ের কাছে বলতে হবে, তোমাদের যে ব্যর্থতা ছিল, সেই ব্যর্থতা তোমাদেরই মোচন করতে হবে।’

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবীব। 

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন