গাইবান্ধায় গত শুক্রবার রাতে বাসে দুর্বৃত্তদের ছোড়া পেট্রলবোমায় দগ্ধ আবুল কালাম (৪০) নামের আরেক ব্যক্তি মারা গেছেন। আজ রোববার বেলা দুইটার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ নিয়ে ওই ঘটনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো আটে। এদিকে এ ঘটনায় গাইবান্ধা জেলা বিএনপির সভাপতিসহ ৯০ জনকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ।

নিহত আবুল কালামের শরীরের ৫৫ শতাংশ দগ্ধ ছিল। তাঁর বাড়ি গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চণ্ডীপুর গ্রামে।

গতকাল শনিবার রাতে ওই ঘটনায় আহত সাজু মিয়া নামের আরেকজন মারা যান। তাঁর বাড়িও সুন্দরগঞ্জের চণ্ডীপুরে। গাইবান্ধা সদর উপজেলার তুলসীঘাট এলাকায় গত শুক্রবার রাতে পুলিশি পাহারার মধ্যে যাত্রীবাহী একটি বাসে পেট্রলবোমা হামলা করে দুর্বৃত্তরা।

মামলা, গ্রেপ্তার: এ ঘটনায় ৯০ জনকে আসামি করে গতকাল শনিবার মামলা করেছে পুলিশ। মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতি আনিছুজ্জামান খান ও সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা মোর্শেদ হাবীবসহ ৬০ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে আরও ৩০ জনকে। আসামিদের মধ্যে বেশির ভাগই জামায়াত-শিবির কর্মী। ঘটনার পর থেকে আজ রোববার দুপুর পর্যন্ত পুলিশ এজাহারভুক্ত ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মাহবুব হোসেন বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলাটি করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন