জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরে ৫ জুলাই ৩৯৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৯০ জনের করোনা শনাক্ত হয় এবং চারজন মারা যান। ৬ জুলাই ১৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৫ জনের করোনা শনাক্ত হয় ও মারা যান তিনজন। ৭ জুলাই ৮০৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়। ওই দিন কেউ মারা যাননি। ৮ জুলাই ৪৪৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ২০০ জনের করোনা শনাক্ত হয় এবং ওই দিন মারা যান তিনজন। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত ১৩ হাজার ৭৯৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ২৬৪ জন মারা গেছেন।

এ বিষয়ে শুক্রবার দুপুরে সিভিল সার্জন মো. খায়রুজ্জামান বলেন, কঠোর লকডাউনের মধ্যে মানুষ অবাধে ঘোরাঘুরি করছে। এ ছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলায় করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে।

গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক রফিকুল ইসলাম বলেন, তাঁদের হাসপাতালে আলাদা করে ১০০ শয্যার একটি করোনা ইউনিট রয়েছে। সেখানে বর্তমানে ৮৩ জন রোগী ভর্তি। তাঁদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।