গোপালগঞ্জে মোটরসাইকেলের চাপায় এক স্কুলছাত্র ও ট্রাকচাপায় এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার এ দুটি দুর্ঘটনা ঘটে।
মোটরসাইকেলের নিচে চাপা পড়ে নিহত স্কুলছাত্রের নাম মাসুদ মিয়া (১০)। সে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার লতিফপুর ইউনিয়নের চরমানিকদাহ গ্রামের সেলিম মিয়ার ছেলে। অপর দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন মোটরসাইকেল আরোহী কলেজছাত্র সৈকত খান (২৩)। তিনি কোটালীপাড়া উপজেলার বান্ধাবাড়ী ইউনিয়নের মধুরডাঙ্গা গ্রামের মৃত রেজাউল ইসলাম খানের ছেলে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, নিহত স্কুলছাত্র পশ্চিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ত। বিদ্যালয় ছুটির পর বেলা দুইটার দিকে বাড়ি ফিরছিল। আধুনিক জেনারেল হাসপাতালের সামনে রাস্তা পার হওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে থাকাকালে বেপরোয়া গতিতে আসা মোটরসাইকেল তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। ক্ষুব্ধ জনতা মোটরসাইকেলটি পুড়িয়ে দেয় এবং এর চালককে পিটুনি দিয়ে পুলিশে দেয়।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গোপালগঞ্জ সদর থানার এসআই সায়েম সুজন বলেন, মোটরসাইকেলের চালক অনিককে আটক করা হয়েছে।
এদিকে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গোপালগঞ্জ-গৌরনদী আঞ্চলিক সড়কের হরিণাহাটি খানবাড়ি এলাকায় একটি ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী সৈকত প্রাণ হারিয়েছেন। তিনি কোটালীপাড়া শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ সরকারি কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। মোটরসাইকেলের আহত অপর এক আরোহীকে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী প্রায় এক ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে।
কোটালীপাড়া থানার এসআই তোতা মিয়া বলেন, সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেওয়ায় ঘণ্টা খানেক পর এলাকাবাসী অবরোধ তুলে নেয়। ট্রাকটি জব্দ করা হলেও চালক পালিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন