গোসলে নেমে কলেজশিক্ষকের মৃত্যু, আরেকজন নিখোঁজ

বিজ্ঞাপন
default-image

কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে হাওরে গোসল করতে নেমে এক কলেজশিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। একই সঙ্গে গোসলে নেমে নিখোঁজ আছেন ওই শিক্ষকের চাচাতো ভাই। আজ শনিবার বিকেলে করিমগঞ্জের হাসানপুর সেতু এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

মারা যাওয়া শিক্ষকের নাম হাদিউল ইসলাম (৩২)। তিনি টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার সখীপুর আবাসিক মহিলা কলেজের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ছিলেন। নিখোঁজ থাকা ব্যক্তি হলেন হাদিউলের চাচাতো ভাই ইকরামুল ইসলাম (৩৫)। তাঁদের বাড়ি কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ চরপুখিয়া গ্রামে।

পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ হওয়ার পর থেকে হাদিউল গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। ঈদ–পরবর্তী আনন্দ ভ্রমণ হিসেবে হাদিউলসহ তাঁর ঘনিষ্ঠ ৪০ থেকে ৪৫ জন হাওর দর্শনে যান। তাঁরা করিমগঞ্জ চামড়া বন্দর থেকে নৌকায় করে আনন্দ ভ্রমণে বের হন। বিকেল পাঁচটার দিকে হাসানপুর সেতু এলাকায় তাঁদের মধ্যে কয়েকজন গোসল করতে পানিতে নামেন। এ সময় স্রোতের তোড়ে হাদিউল ও ইকরামুল তলিয়ে যান। পরে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে উদ্ধারকাজে নামেন। সন্ধ্যার দিকে হাদিউলের লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে ইকরামুলের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

হাদিউলের বাবা শামসুল ইসলাম বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে অনেকটা ঘরবন্দী জীবন কাটিয়েছেন হাদিউল। স্বস্তি পেতে ঈদের আগ থেকেই হাওরে যাওয়ার কথা বলছিলেন। তাঁর ছেলে সাঁতার জানতেন।

করিমগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আমিনুল মোমেনিন বলেন, নিখোঁজ ইকরামুলের সন্ধানে একটি দল হাওরে তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন