রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ পৌর শহরের মসজিদ পাড়ায় সোমবার সন্ধ্যায় মাটির চুলার আগুনে রোকেয়া বেগম (৬০) নামের এক নারীর শরীর ঝলসে গেছে। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে ছেলের দুই হাতও ঝলসে যায়।
এলাকার কয়েকজন জানান, সোমবার সন্ধ্যায় মোশাররফ হোসেন ওরফে মুসার স্ত্রী রোকেয়া বেগম ঘরের চুলায় চা তৈরি করতে যান। এ সময় অসাবধানতাবশত তাঁর শাড়ির আঁচলে আগুন লাগে। মুহূর্তেই আগুনে তাঁর শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে যায়।
তাঁর চিৎকার শুনে ছেলে মামুন হোসেন (২৫) গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। এতে মামুনের দুই হাতও ঝলসে যায়।
পরে পরিবার ও স্থানীয় লোকজন দুজনকে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে মামুনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।
রোকেয়া বেগমকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় ওই রাতেই চিকিৎসকেরা তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন