সবার জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার নিরাপদ করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে আজ মঙ্গলবার ‘সেফার ইন্টারনেট ডে ২০১৫ ’ উদযাপন করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় মুঠোফোন অপারেটর গ্রামীণফোন। এ উপলক্ষে প্রতিষ্ঠানটির বসুন্ধরার প্রধান কার্যালয়ে অভিভাবক আর শিক্ষকদের নিয়ে শিশু-কিশোরদের জন্য সুরক্ষিত ইন্টারনেট-বিষয়ক এক বিশেষ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

ওয়ার্ল্ড ভিশনের সহযোগিতায় কর্মশালাটি পরিচালনা করে গ্রামীণফোনের সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) বিভাগ। বিশ্বব্যাপী প্রতিবছর শতাধিক দেশে এই দিবস উদযাপন করা হয়। ইউরোপিয়ান কমিশন এবং ইউরোপজুড়ে ৩১ টি জাতীয় সেফার ইন্টারনেট সেন্টারের সহযোগিতায় এর সমন্বয়কারী হিসেবে যুগ্মভাবে দায়িত্ব পালন করে ইনসেফ ও ইনহোপ নেটওয়ার্ক।
কর্মশালায় বলা হয়, মোবাইল ফোন ও অনলাইন যোগাযোগ শিশু ও তরুণদের জন্য অসাধারণ সুযোগ করে দেয়। তবে এর ফলে তারা ক্ষতিকারক ওয়েবসাইট, হয়রানি বা সমপর্যায়ের ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারে। এ ক্ষেত্রে অভিভাবকদের সচেতন থাকতে হবে। গ্রামীণফোনের নিরাপদ ইন্টারনেট উদ্যোগের লক্ষ্য হচ্ছে এর ব্যবহার যেন শুধু ইতিবাচক সুযোগই তৈরি করে, হয়রানির নয়।
সামাজিক স্বাবলম্বন এবং সুরক্ষিত ডিজিটাল যোগাযোগের মাধ্যমে জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে গ্রামীণফোনের লক্ষ্যমাত্রার সঙ্গে এই উদ্যোগটি সমন্বিত। এভাবে, সুরক্ষিত ও দায়িত্বশীল ইন্টারনেট-সেবার মাধ্যমে গ্রামীণফোন তাদের ‘সবার জন্য ইন্টারনেট’ লক্ষ্য অর্জন করতে চায়। বর্তমানে দেশের ১ কোটি ৮ লাখ মানুষ গ্রামীণফোন ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন