চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে শুরু হয়েছে ১০ দিনব্যাপী বইমেলা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম মুসলিম ইনস্টিটিউট চত্বরে এই মেলার উদ্বোধন করেন সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মন্জুর আলম।
অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। ছুটির দিন হওয়ায় প্রথম দিনেই বিপুল দর্শনার্থীর সমাগম ঘটে।
সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, এবারের বইমেলায় ২৮টি প্রকাশনা সংস্থা অংশ নিচ্ছে। উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা সংস্থার মধ্যে রয়েছে দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড, প্রথমা, শৈলী, অ্যাডর্ন, কালধারা, কথন ও আবির প্রকাশন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় মেয়র বলেন, ‘ধীরে ধীরে এই বইমেলার পরিধি ও প্রসার বাড়ছে। একসময় কয়েকটি স্টল নিয়ে সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে বইমেলা শুরু হয়েছিল। এখন তা চট্টগ্রামের লেখক-সাহিত্যিকদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে। আশা করি, ভবিষ্যতে আরও বড় পরিসরে এ মেলা আয়োজন করা হবে।’
আলোচনা সভায় চট্টগ্রামের দুই প্রকাশক সবার সমন্বয়ে একটি বইমেলা আয়োজনের জন্য সিটি করপোরেশনের প্রতি আহ্বান জানান।
সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর জহর লাল হাজারীর সভাপতিত্বে ও জনসংযোগ কর্মকর্তা আবদুর রহিমের পরিচালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, সচিব রশিদ আহমদ, চট্টগ্রাম বিভাগীয় গণগ্রন্থাগারের উপপরিচালক রিয়াজ উদ্দিন, চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদের সভাপতি মহিউদ্দিন শাহ আলম নিপু ও সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন।
আলোচনা সভা শুরুর আগে মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন মেয়র।
দি ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেডের বিক্রয় নির্বাহী রাহুল মজুমদার প্রথম আলোকে বলেন, প্রথম দিন তুলনামূলকভাবে ভালোই সাড়া পাওয়া গেছে।
প্রথমা প্রকাশনের বিক্রয়কর্মী সোহেল হাসান বলেন, ছুটির দিন হওয়ায় অনেক মানুষ এসেছেন। তাঁরা বই দেখছেন। প্রচুর বই বিক্রি হচ্ছে।
মেলায় আসা একটি বেসরকারি ব্যাংকের কর্মকর্তা শাহরিয়ার পারভেজ বলেন, গতবারের তুলনায় এবার মেলা অনেক গোছানো মনে হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন