default-image

চট্টগ্রাম নগরের পাথরঘাটা এলাকায় গ্যাসলাইন বিস্ফোরণের ঘটনায় গুরুতর আহত ছাত্রী অর্পিতাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) হাসপাতালে বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। আজ রোববার সন্ধ্যা সাতটার দিকে তাকে ভর্তি করা হয়।

অর্পিতা রানী দেবী (১৬) চট্টগ্রাম নগরীর অপর্ণাচরণ সিটি করপোরেশন বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। তার বাবার নাম কাজল কান্তি নাথ। তারা চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানার বাসিন্দা।

কাজল কান্তি বলেন, বিস্ফোরণের সময় অর্পিতা ও তার খালা সন্ধ্যা রানী (৪০) বাসার একই কক্ষে ছিলেন। অর্পিতা বই পড়ছিল। হঠাৎ বিস্ফোরণে একটি দেয়াল ভেঙে ঘরে মধ্যে পড়ে। এ সময় আগুনের শিখায় তারা দুজনই দগ্ধ হয়। পরে তাদের দুজনকে চট্টগ্রাম সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। ওই হাসপাতালে সন্ধ্যা ভর্তি আছেন। তবে অর্পিতার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢামেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

চিকিৎসকের বরাতে ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়া বলেন, অর্পিতার মুখমণ্ডল, বুকসহ ৩২ শতাংশ পুড়ে গেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন